Press "Enter" to skip to content

১০০০+ হিন্দুর ধর্ম বদলে বানিয়েছিল মুসলিম, দুই মৌলানাকে ধরল ইউপি ATS! বিদেশী ফান্ডিং-ISI যোগের আশঙ্কা

লখনউঃউত্তর প্রদেশ মূক-বধির এবং দরিদ্র ছাত্রদের অর্থ, আর বিয়ে করানোর প্রলোভন দেখিয়ে ান্তকরণ করানো একটি বড়সড় গ্যাংয়ের পর্দাফাঁস করে দুই মৌলানাকে গ্রেফতার করেছে। এদের বিরুদ্ধে কমপক্ষে ১ হাজার মূক-বধির মহিলা আর বাচ্চাদের ধর্ম করানোর অভিযোগ উঠেছে। উত্তর প্রদেশ পুলিশ আইএসআই আর বিদেশী ফান্ডেরও এই গ্যাংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, এই গ্যাং ব্রেনওয়াশ করিয়ে হিন্দুদের ধর্ম পরিবর্তন করায়। ADG আইনশৃঙ্খলা প্রশান্ত কুমার অনুযায়ী, ধর্ম পরিবর্তন করিয়ে তাঁদের কট্টরতার পাঠ দেওয়া ছিল এদের অন্যতম কাজ। রিপোর্ট অনুযায়ী, গ্রেফতার হওয়া দুই অভিযুক্ত নয়া দিল্লীর বাসিন্দা। একজন জামিয়া নগরের মুফতি কাজি জাহাঙ্গীর আরেকজন জামিয়া নগরের মহম্মদ উমর গৌতম বলে সনাক্ত হয়েছে। মহম্মদ উমর গৌতম আগে হিন্দু ছিল। তাঁকেও ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তকরণ করানো হয়েছিল।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখ্য, ইউপি পুলিশ দীর্ঘদিন ধরেই সূচনা পাচ্ছিল যে কিছু দেশ বিরোধী এবং সমাজবিরোধী গোষ্ঠী ইসলামিক সংগঠন এবং পাকিস্তানের আইএসআই আর বিদেশী ফান্ডিংয়ের মাধ্যমে দরিদ্র অসহায় মানুষকে প্রলোভন দেখিয়ে তাঁদের ধর্মান্তকরণ করছে।

শুধু তাই নয়, এটা হিন্দুদের প্রতি ঘৃণা ছড়ানো আর অপরাধ করার জন্য উস্কানি দিত। এই সূচনার ভিত্তিতে উত্তর প্রদেশ পুলিশ পদক্ষেপ নিয়ে দুই মৌলবিকে গ্রেফতার করেছে। ইউপি পুলিশ চারদিন ধরে এদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তথ্য জোগাড় করার চেষ্টা চালাচ্ছে। ধৃত মৌলানা জাহাঙ্গীর আর উমর গৌতমের সঙ্গে লখনউয়ের অনেক বড়বড় ের যুক্ত থাকার কথাও সামনে আসছে।

এই বিষয়ে উত্তর প্রদেশের এডজি আইনশৃঙ্খলা প্রশান্ত কুমার একটি প্রেস কনফারেন্স করে চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এনেছেন। তিনি জানিয়েছেন, এর আগে বিপুল বিজয়বর্গীয় আর কাসিফ নামের দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদে জানা গিয়েছিল যে, একটি বড় গ্যাং প্রলোভন দেখিয়ে মানুষের ধর্মান্তকরণ করাচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে মহম্মদ উমর গৌতমের নাম সামনে এসেছিল। সে নিজেও ধর্মপরিবর্তন করিয়েছিল। এরপর সেই তথ্যের ভিত্তিতে রবিবার দুজন মৌলানাকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রশান্ত কুমার জানান, জিজ্ঞাসাবাদে ১ হাজার জনের নাম সামনে এসেছে যাদের এঁরা ধর্ম পরিবর্তন করিয়েছে। এডিজি বলেন, বিদেশী ফান্ডের মাধ্যমে দেশের সম্প্রীতি নষ্ট করার কাজ করছে। তাঁরা নয়ডা, কানপুর, মথুরা আর বারাণসীর মতো এলাকায় থাকা গরিবদের নিশানা করছে।

এডিজি অনুযায়ী, উমর গৌতম নিজে ধর্ম বদলে হিন্দু থেকে মুসলিম হয়েছে। এরপর সে উত্তর প্রদেশের বিভিন্ন জায়গায় অ-মুসলিম মূকবধির, মহিলা আর বাচ্চাদের ধর্ম পরিবর্তন করিয়েছে। উমর আর তাঁর সহযোগী দিল্লী জামিয়া নগরে একটি সংস্থা চালায়। ওই সংস্থার মূল উদ্দেশ্য হল অ-মুসলিমদের ইসলাম ধর্ম কবুল করানো। এই কাজের জন্য ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং ক্যাশে টাকার যোগান দেওয়া হয়।