Press "Enter" to skip to content

১২৩ বছরের পুরনো আইন বদলে দিলো মোদী সরকার, এবার স্বাস্থ্যকর্মীদের গায়ে হাত দিলেই কড়া শাস্তি

নয়া দিল্লীঃ রাজ্যসভায় শনিবার মহামারী রোগ বিল (Epidemic Diseases Act, 1897) (সংশোধন) ২০২০ পাশ হয়ে গিয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডঃ হর্ষবর্ধন সংসদে এই বিল পেশ করেছিলেন। রাজ্যসভায় ডঃ হর্ষবর্ধন বলেন, ‘করোনার সাথে যুক্ত কলঙ্কের কারণে, অনেক স্বাস্থ্যকর্মী, ডাক্তার প্যারামেডিক্সদের কোনও না কোনও ভাবে অপমান করা হয়েছে। কেন্দ্র সরকার এই পরিস্থিতি নিয়ে গভীর আলোচনার পর ঠিক করে যে, এই ঘটনা রুখতে একটি কড়া আইন আনার দরকার।”

জানিয়ে দিই, এই আইনে মহামারীর সময় দেশে নার্স, ডাক্তার, আশাকর্মীদের সুরক্ষা আর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির কথা বলা হয়েছে। এই আইনে ডাক্তার এবং অন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা করা ব্যাক্তিকে অধিকতম সাত বছরের সাজা দেওয়া হতে পারে।

হামলাকারীদের উপর ৫০ হাজার থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানার নিয়ম রাখা হয়েছে। এছাড়াও তিন মাস থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে। আর স্বাস্থ্যকর্মীরা যদি গুরুতর আহত হন, তাহলে অধিকতম সাত বছরের সাজা হতে পারে। আর এই জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা হবে। জানিয়ে দিই, ১২৩ বছরের পুরনো আইনকে সংশোধন করে নতুন ভাবে লাগু করল মোদী সরকার। উল্লেখ্য, এই বছরের এপ্রিল মাস থেকে দেশে স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা একের পর এক হামলার কথা মাথায় রেখে ১৮৯৭ সালের এই আইনে সংশোধন করে নতুন মাত্রা দেওয়া হয়েছে।

আরেকদিকে, লকডাউনের মধ্যে চালানো শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন নিয়ে করা একটি প্রশ্নের জবাবে রেল মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল জানান, লকডাউনে শ্রমিকদের ভিন রাজ্য থেকে নিজ রাজ্যে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য চালানো ট্রেনে ৯৭ জন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। গোয়েল বলেন, এই পরিসংখ্যান রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হয়েছে।