Press "Enter" to skip to content

২০২২-এর জুলাই মাস থেকে দেশে ব্যবহার করা যাবে না সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক, ব্যান করল মোদী সরকার

[ad_1]

নয়া দিল্লীঃ ভারতকে সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক মুক্ত করার জন্য বড় পদক্ষেপ নিল মোদী সরকার। দেশকে সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক মুক্ত করার জন্য আর প্লাস্টিকের থেকে তৈরি হওয়া আবর্জনা আর বিপদের কথা মাথায় রেখে কেন্দ্র সরকার বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বৃহস্পতিবার কেন্দ্র সরকার ঘোষণা করেছে যে, গোটা দেশে আগামী বছরের ১ জুলাই থেকে সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক আর ব্যবহার করা যাবে না। এমনকি সিঙ্গেল ইউজ প্লাটিকের উৎপাদনও নিষিদ্ধ হবে।

কেন্দ্র একটি খসড়া জারি করে জানিয়েছে যে, এই পরিকল্পনা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের প্রভাবিত করবে না, আর পাশাপাশি আবর্জনা থেকে বর্ধিত বিপদকে দেখে ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে পলিথিনের ব্যাগের ব্যাস ৫০ মাইক্রোন থেকে বাড়িয়ে ১২০ মাইক্রোন করা হবে। এখনও পর্যন্ত দেশে ৫০ মাইক্রোনের ব্যাগই উৎপাদন হয়।

আগামী ১৫ আগস্ট ২০২২-র দিন পর্যন্ত গোটা দেশে প্রয়োগ হওয়া প্লাস্টিক বস্তু নির্মাণ, আমদানি, স্টোরেজ, বিতরণ, বিক্রি আর ব্যবহার নিয়ম মাফিক ব্যান হবে। সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিককে দুই ভাগে ব্যান করা হবে। প্রথম ভাগের শুরু ২০২২-র জানুয়ারি মাস থেকে শুরু হবে। সেই সময় কিছু প্লাস্টিকের সামগ্রী যেমন পতাকা, বেলুন, আর ক্যান্ডি স্টিক নিষিদ্ধ হবে। এরপর জুলাই ২০২২ থেকে প্লেট, কাপ, গ্লাস, চামচ, চাকু, আমন্ত্রণ কার্ড, সিগারেটের প্যাকেটের মতো বাকি জিনিষগুলি নিষিদ্ধ হবে।

সরকারের এক আধিকারিক জানান, প্রথমে সেসব জিনিষগুলিকেই নিষিদ্ধ করা হবে যেগুলোর খুব সহজেই বিকল্প মেলে। একই সময়ে, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সমন্বয়ের দায়িত্ব থাকবে নগর নিগম এবং গ্রাম পঞ্চায়েতের উপর। এ ছাড়া, কম্পোস্টেবল প্লাস্টিকের তৈরি ক্যারি ব্যাগগুলিতে ব্যাসের বিধান প্রযোজ্য হবে না। কম্পোস্টেবল প্লাস্টিক বহনকারী প্রস্তুতকারক বা বিক্রেতাদের প্লাস্টিক সামগ্রী বিক্রি বা ব্যবহারের আগে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের কাছ থেকে একটি সার্টিফিকেট নিতে হবে।

[ad_2]