Press "Enter" to skip to content

২০ বছর লিভ-ইনে থাকার পর বিয়ে করে হিন্দু হলেন মুসলিম যুবতী! বিয়ে দেখতে হাজির গোটা গ্রাম

উত্তর প্রদেশের () একটি () চর্চায় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ওই বিয়ে দেখার জন্য গোটা গ্রামের মানুষ উপস্থিত ছিলেন। বিবাহ বন্ধনে বাঁধা পড়া প্রেমিক প্রেমিকার ধর্ম আলাদা হলেও তাঁদের ভালোবাসা এক ছিল। উল্লেখ্য, ২০ বছরের প্রেমে একে অপরের সাথে লিভ-ইন রিলেশনে (Live In Relationship) থাকা ভরত লাল হাসিরুন নিশাকে () বিয়ে করেন। দুজনের প্রেমের মাঝে ধর্ম যাতে কাঁটা হয়ে না দাঁড়ায়। সেই কারণে নিশা নিজের নাম বদলে মালতী করে নেয়। বৃহস্পতিবার হাসিরুন আর ভরত হিন্দু সংস্কৃতি অনুযায়ী একে অপরকে বিয়ে করে নেয়।

রায়বেরালি জেলার উঁচাহার কোতওয়ালি থানার পয়াগপুর নদৌরা গ্রামের ভরত লাল আর নিশার বিবাহের অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার গ্রামের সব মানুষই এসে হাজির হন। আর এই বিয়ে খুবই ধুমধামের সাথে পালিত হয়। ভরত লাল নিজের গ্রামে একটি ছোট দোকান চালান। ২০ বছর আগে নিশার সাথে তাঁর ভালোবাসার সম্পর্ক হয়েছিল। সময় যেতে যেতে দুজনে লিভ ইন রিলেশনে থাকা শুরু করেন।

অবশেষে ২০ বছর পর তাঁরা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। তাঁদের সিদ্ধান্তে খুশি হয়ে গ্রামবাসিরা ভরপুর সাহায্য করে এবং হিন্দু সংস্কৃতি অনুযায়ী দুজনের  বিয়ে দেয়। বিয়ের পর হাসিরুন নিশা এখন মালতী নামে পরিচিতি পাবে। এই দুজনের বিয়ের চর্চা আশেপাশের গ্রামে একটি উদাহরণ হয়ে যায়।

গ্রামবাসি এবং নব দম্পতি তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানকে ঐতিহাসিক বানাতে কোন কিছুই বাকি রেখেছিল না। একদিকে যখন দেশের রাজধানী দিল্লীতে ধর্মের নামে হিংসা ছড়াচ্ছে, তখন আরেকদিকে ধর্মকে দূরে সরিয়ে রেখে দুই ভালোবাসার মানুষের বিয়ে সবার কাছে একটি উদাহরণ হয়েই উঠে আসছে।