Press "Enter" to skip to content

২ টি বিয়ে করে তৃতীয় বিয়ে করতে গেছিল মুজ্জামিল হোসেন! কনেপক্ষের গণধোলাই খেয়ে পাল্টে গেল মুখের আকৃতি

[ad_1]

বিয়ে করতে আসা বর ও বরপক্ষের আমন্ত্রনে কোনো ত্রুটি রাখেনি কন্যার বাড়ির লোকজন। তবে হটাৎ বিয়ের সানাই পরিবর্তন হয় হৈহট্টগোলে। কারণ খুঁজলে জানা যায় কনের পক্ষের সাথে তুমুল ঝামেলা বর তথা বর পক্ষের। কনেপক্ষের হাত মার অবধি খেয়েছে বিয়ে করতে যাওয়া বর। আরো গভীরে গেলে জানা যায় বিয়ে করতে এসে বর ১০ লক্ষ টাকা পনের দাবি করে বসেছে।

বর দাবি জানিয়ে বলেন, যদি টাকা না দেওয়া হয় তাহলে সে বিয়ে করবে না। বিয়ে করতে এসে এমন কথা! শুনেই তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে কনে বাড়ির লোকজন। কেউ কেউ নিজেকে সামলাতে না পেরে শুরু করে খেলা। চরম গনধোলাই দিয়ে পাল্টে দেওয়া হয় বরের মুখের আকার আকৃতি।

তবে কাহিনী এখানেই আটকে নেই। খবর নিয়ে জানা যায় বরে অতীত আরো মশলাদার। অভিযুক্ত এর আগেও ২ টি থেকে ৩ টি বিয়ে করেছে। ঘটনাটি ঘটিত হয়েছে উত্তরপ্রদেশের শাহীবাবাদ এলাকায়। যেখান থেকে এক বিয়ে বাড়ির ভিডিও ভাইরাল (Viral Video) হয়েছে। ভিডিও দেখে যা বোঝা যাচ্ছে তা এই যে, বরকে একদল লোক মারার জন্য উগ্র হয়ে উঠেছে। কয়েকজন বরকে বাঁচানোর চেষ্টাও করছেন।

অভিযুক্ত এর নাম মুজ্জামিল হোসেন, তিনি উত্তরপ্রদেশের আগ্রার বাসিন্দা। আপাতত পুলিশ তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় এতটাই ভাইরাল যে টুইটারের টপ ট্রেন্ডিংয়ে এসেছে। প্রসঙ্গত বিয়ে বাড়িতে পন চেয়ে ঝামেলা এই প্রথমবারের ঘটনা নয় এর আগেও এমন ঘটনা খবরে এসেছে। তবে খবর হাইলাইটে তখন এসেছে যখন বরের অতীতের বিয়ের কাহিনী সামনে এসেছে।

[ad_2]