Press "Enter" to skip to content

৩৩ কোটি থেকে ৪.২৮ লক্ষ কোটি টাকা!! এইভাবেই গুন্ডারাজকে রামরাজ্যে পরিবর্তন করে চলেছেন যোগী আদিত্যনাথ।

উত্তরপ্রদেশ এমন একটা রাজ্য যা আগে দেশের জিহাদি রাজ্য বা ইসলামিক রাজ্য হিসেবে পরিচিত ছিল । এই রাজ্যের মুলায়ম সিং যাদব থেকে শুরু করে মায়াবতী যারাই এসেছেন সকলেই মুসলিম সম্প্রদায়ের তোষণ করে হিন্দুদের বিপদের মধ্যে ফেলতেন। আর এইকারনে রাজ্যের মানুষ মুলায়ম সিংহকে মুল্লা মুলায়ম সিং ও বলতেন।

আপনাদের জানিয়ে উত্তরপ্রদেশ দেশের সব থেকে বড়ো রাজ্য যেখানে বড়ো বড়ো ইনভেস্টমেন্টের সম্ভাবনা প্রবল ছিল কিন্তু রাজ্যজুড়ে জিহাদি উপদ্রপ এবং গুন্ডাদের উপদ্রবের কারণে বড়ো কখনও বড়ো কোনো ইনভেস্টমেন্ট হতো না।
জানলে অবাক হবেন আখিলেশ যাদবের আমলে ২০১৫ সালে যেটা উত্তরপ্রদেশে ইনভেস্টর মিট এর চুক্তি হয়েছিল সেখানে মাত্র ৩৩ কোটি টাকার চুক্তি সম্পন্ন হয়েছিল। এমনকি পরের বছরেও আখিলেশের সরকার কোনো উত্তরপ্রদেশে কোনো ইনভেসমেন্ট আনতে পারেননি। যার কারণে রাজ্যের খুবই ক্রুদ্ধ হয়েছিল ।

অন্যদিকে যোগী সরকার রাজ্যে আসার পর থেকেই গুন্ডাদের উপর অ্যাকশন নিতে শুরু করে দেয় যার জন্য জিহাদি শক্তি ও গুন্ডাদল নিজে থেকেই প্রশাসনের কাছে আত্মসমর্পন করতে থাকে। যার ফলাফল ১০ মাসের মধ্যেই পেতে শুরু করে প্রদেশবাসী। যোগী আদিত্যনাথ যে ইনভেস্টর সামিটের আয়োজন করেন সেখানে প্রথম দিনেই যে চুক্তি সামনে আসে তা প্রদেশে তৈরী করে । প্রথম দিনেই উত্তরপ্রদেশে ৪ লক্ষ কোটি টাকার চুক্তি সম্পন্ন হয় যেখানে প্রায় ৫০০ কোম্পানি অংশগ্রহণ করেছিল। এই পরিমান ইনভেস্ট যে উত্তরপ্রদেশকে নতুন উত্তরপ্রদেশ গড়ে উঠতে সাহায্য করবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

আপনাদের জানিয়ে রাখি উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার আসার পর থেকে রাজ্যজুড়ে উন্নয়ন এর ছবি ভালোরকম চোখে পড়ছে। আগে যেখানে প্রদেশের মাত্র 2 থেকে তিনটি জেলায় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ছিল যোগী সরকার আসার পর রাজ্যের প্রত্যেক জেলায় বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। একই সাথে প্রদেশে রাস্তা ঘাট, স্্থব্যবস্থা এবং শিক্ষাক্ষেত্রে পরিবর্তন করেই চলেছে যোগী সরকার ।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.