Press "Enter" to skip to content

৩৫০ কিমি দূরে বসে থাকা শত্রুদের শেষ করতে স্বদেশী পরমাণু মিসাইল পৃথিবী-২ এর সফল পরীক্ষণ করল ভারত

[ad_1]

নয়া দিল্লীঃ প্রতিরক্ষা অনুসন্ধান এবং উন্নয়ন সংস্থা (DRDO) দ্বারা বিকশিত কম দুরত্বের ব্যালাস্টিক মিসাইল পৃথিবী-২ (Prithvi) এর সফল পরীক্ষণ করল ভারত। উড়িষ্যার বালাসোরের উপকূল থেকে এই মিসাইলের সফল পরীক্ষণ করা হয়। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, মিসাইল সমস্ত লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম হয়েছে। এই মিসাইলকে স্ট্যাটার্জিক মিশন কম্যান্ড দ্বারা পরিচালিত করা হয়েছিল।

জমি থেকে জমিতে লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম এই মিসাইল পরমাণু ওয়ারহেডও বহন করতে পারবে। প্রতিরক্ষা সুত্র অনুযায়ী, এই অত্যাধুনিক মিসাইল উড়িষ্যার চাঁদিপুর ইন্টিগ্রেটেড টেস্ট সেন্টার থেকে রাতের অন্ধকারে পরীক্ষণ করা হয়েছে। আর পরীক্ষণ সফল করে এই মিসাইল সমস্ত লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম হয়েছে। DRDO এর আধিকারিক জানান, কমপ্লেক্স-৩ থেকে একটি মোবাইল লঞ্চার দ্বারা এই মিসাইল উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল। এই মিসাইল ৩৫০ কিমি পর্যন্ত শত্রুপক্ষকে ধ্বংস করতে সক্ষম।

আরেকদিকে, গতকাল DRDO একটি বড়সড় সফলতা হাসিল করে। DRDO গতকাল লেজার গাইডেড অ্যান্টি ট্যাঙ্ক মিসাইলের (Anti Tank Guided Missile) সফল পরীক্ষণ করেছে। DRDO আহমেদনগর কেকে রেঞ্জে এমবিটি অর্জুন ট্যাঙ্ক থেকে লেজার গাইডেড অ্যান্টি ট্যাঙ্ক মিসাইলের সফল পরীক্ষণ করেছে। DRDO জানায়, এই মিসাইল তিন কিলোমিটার দূরে থাকা লক্ষ্যে সঠিক আঘাত হানতে সক্ষম। এই মিসাইলকে অনেক কয়েকটি প্ল্যাটফর্ম থেকে লঞ্চ করা যেতে পারে। বর্তমানে এমবিটি অর্জুনের একটি বন্দুক থেকে প্রযুক্তিগত মূল্যায়ন পরীক্ষা চলছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

এছাড়াও এটি হিট (হাই স্পিড এক্সপেনডেবল এরিয়াল টার্গেট) ওয়ারহেডের মাধ্যমে বিস্ফোরক প্রতিক্রিয়াশীল আর্মার (ERA) সুরক্ষিত যানবাহনকে নাস্তানাবুদ করতে সক্ষম। এই ক্ষেপণাস্ত্রটি আধুনিক ট্যাঙ্কগুলির পাশাপাশি ভবিষ্যতের ট্যাঙ্কগুলিও ধ্বংস করতে সক্ষম হবে। একই সময়ে, নিম্ন উচ্চতায় উড়ন্ত হেলিকপ্টারগুলি এটিজিএমের মাধ্যমেও ধ্বংস করা যাবে।

আরেকদিকে, ভারত (India) মঙ্গলবার স্বদেশী হাই স্পীড টার্গেট ড্রোন অভ্যাস (ABHYAS) এর সফল পরীক্ষণ করে। অভ্যাস একটি উচ্চ-গতির ড্রোন যা অস্ত্র ব্যবস্থার অনুশীলনের সময় মিসাইল দ্বারা টার্গেট করা যেতে পারে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং মঙ্গলবার বলেন, প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (Defence Research and Development Organisation) উড়িষ্যার বালাসোরের ইন্টিগ্রেটেড টেস্ট রেঞ্জ (ITR) থেকে অভ্যাস হাই স্পীড এক্সপেন্ডেবেল এরিয়াল টার্গেটের সফল পরীক্ষণ করেছে। এটা ভারতের জন্য একটি বড় উপলব্ধি।

[ad_2]