Press "Enter" to skip to content

৫৭টি ইসলামিক দেশের বৈঠকে ইজরায়েলকে করা হল হুঁশিয়ার, তুর্কি বলল ওঁরা হুঁশিয়ারি মানে না



নয়া ঃ ইজরায়েল আর গাজা পট্টিতে প্রশাসনিক অধিকার দখল করে রাখা জঙ্গি সংগঠন হামাসের মধ্যে বিগত এক সপ্তাহ ধরে সংঘর্ষ চলছে। আর এই সংঘর্ষের মধ্যে রবিবার ৫৭টি ের সংগঠন OIC ের জেদ্দায় এমার্জেন্সি বৈঠক ডাকে। এই বৈঠকে অনেক দেশের প্রতিনিধিরা যুক্ত হয়, তাঁরা সেখানে আল-আকসা মসজিদে ইজরায়েলের পদক্ষেপের সমালোচনা করে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

মন্ত্রীস্তরীয় এই বৈঠকে প্রস্তাবের মাধ্যমে ইসলামিক উম্মাহ-র লঙ্ঘন আর প্যালেস্তাইনের বিরুদ্ধে উগ্র পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ইজরায়েলকে ভয়ঙ্কর পরিণামের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

আফগানিস্তানের বিদেশ মন্ত্রী হানিফ অনমর বলেন, ‘প্যালেস্তাইনিদের সঙ্গে আজ যা হচ্ছে সেটা ইসলামিক দেশগুলোর কাছে ঘা-এর মতন।” প্যালেস্তাইনের বিদেশ মন্ত্রী বলেন, ‘শেষ সময় পর্যন্ত আমি যেন প্যালেস্তাইনিদের উপর হওয়া অত্যাচারের বিরোধীতা করতে পারি। তেমন শক্তি দেওয়ার আবেদন করছি আল্লহর কাছে।” তুরস্ক এই বৈঠকে ইজরায়েলের তুমুল বিরোধিতা করে। দেশের বিদেশ মন্ত্রী বলেন, ‘ইজরায়েলকে যেই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল, ওঁরা তাতে কর্ণপাত করেনি। গাজা পট্টি আর ওয়েস্ট ব্যাঙ্কে যা হচ্ছে তাঁর জন্য একমাত্র ইজরায়েল দায়ী।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

বলে দিই, ইজরায়েল আর প্যালেস্তাইনের সংঘর্ষ দিনদিন ভয়াবহ রূপ ধারণ করছে। ইতিমধ্যে ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বলে দিয়েছেন যে, তাঁদের তরফ থেকে এই অভিযান শেষ হবে না। তিনি শেষ দেখেই ছাড়বেন। আরেকদিকে, হামাসের তরফ থেকেও এই সংঘর্ষ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা করা হয়েছে। এখন এটাই দেখার বিষয় যে, এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ কবে থামে।