Press "Enter" to skip to content

ভারতীয় সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনতে বড় পদক্ষেপ নিলো উত্তরাখণ্ডের বিজেপি সরকার।

মিড ডে মিলের আগে ভোজন মন্ত্র পাঠ করানো হবে এমনি নিয়ম চালু করতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকার। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এর থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী উত্তরাখণ্ড রাজ্য সরকার ১৮,০০০ সরকারি স্কুলকে এই নির্দেশ দেওয়ার সিধান্ত নিয়েছে যার মাধমে প্রায় ১২ লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে মিড ডে মিলের আগে ভোজন মন্ত্র পাঠ করানো হবে। যদিও এই ভোজন মন্ত্র পাঠের জন্য কোনো ছাত্রছাত্রীকে বা কোনো স্কুলকর্তৃপক্ষকে জোর করা হবে না বলেও জানিয়েছে উত্তরাখণ্ড রাজ্য সরকার।

সঙ্গস্কৃত ভাষায় এই মন্ত্র স্কুলের দেয়ালেও লেখা থাকবে বলে জানা গিয়েছে। এক বৈঠকে উত্তরাখণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষাদপ্তরের অফিসাররা বলেন, মিড ডে মিল খাওয়ার আগে ভোজন মন্ত্র পাঠ করানো হবে এবং এর জন্য আমরা সূচীপত্র তৈরী করার চিন্তাভাবনা করছি। তবে স্কুলের কিচেন রুমে ভোজনমন্ত্র লিখে রাখতে হবে তার কোনো বাধ্যতা নেই, এই বিষয়ের সমস্থ সিধান্ত স্কুলকর্তৃপক্ষ এবং ছাত্রছাত্রীদের উপর ছেড়ে দেওয়া হবে। স্কুল শিক্ষার ডিরেক্টর আর.কে.কুনওয়ার বলেন বৈঠকে স্কুলে যোগা অভ্যাস,ভারতের ইতিহাসের মহান নেতাদের জীবনী সম্পর্কে জ্ঞান প্রদান, স্কুলে পঠনপাঠন শুরু হওয়ার আগে স্বরস্বতী বন্দনার বিষয়েও আলোচনা করা হয়েছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি সম্প্রতি কেন্দ্র সরকার পাঠ্যপুস্তকে প্রাচীন ভারতের মূল্য ও জ্ঞান প্রচারের সম্পর্কিত বিষয় যুক্ত করবে বলে জানা গিয়েছে।

NCERT পাঠ্যপুস্তকে এবার থেকে প্রাচীন ভারতের আয়ুর্বেদ, উপনিষদ, স্মৃতি যোগা ও প্রাচীন ভারতের অন্যান বৈজ্ঞানিক উপলদ্ধির(এসট্রেলজি, মেটালার্জি, কেমিস্ট্রি ও ফিলোসফি) বিষয় যোগ করা হবে বলে জানা গিয়েছে। আসলে এই পদক্ষেপের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীরা প্রাচীন ভারত সম্পর্কে শুধু জানতেই পারবে না, এর সাথে সাথে নিজেদের অজান্তেই তাদের মধ্যে সঞ্চার হবে দেশপ্রেমের ভক্তি এবং দেশের প্রতি গৌরবময় হওয়ার মাত্রা।