Press "Enter" to skip to content

২০১৯ লোকসভা নির্বাচন : প্রায় ঠিক হয়ে গেল যে কোন সিট থেকে নরেন্দ্র মোদী লড়তে পারেন নির্বাচনে ! Bengali News

আমাদের দেশে বিজেপি ক্ষমতায় এসেছে ২০১৪ সালে। তারপর থেকে দেশের অনেক কিছু পরিবর্তন করেছে মোদী সরকার। দেশের উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। তাই বিজেপি এখন দেশের সবচেয়ে লোকপ্রিয় রাজনৈতিক দলে রূপান্তরিত হয়েছে। আর এই জনপ্রিয় জাতীয় রাজনৈতিক দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তি হচ্ছেন আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী মাননীয় মহাশয়। মোদীজি এই মুহূর্তে দেশ ছেড়ে বিদেশেও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। সমগ্র বিশ্বজুড়ে এখন মোদীজিকে নিয়ে আলোচনা চলছে। আর আমাদের দেশে এই মুহূর্তে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা হলেন । তাই মোদীজিকে নিয়ে দেশের রাজনীতিতে একটা চর্চা সবসময় চলে।
আর এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি নিয়ে চর্চা চলছে সেটা হল আসন্ন ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কোথা থেকে নির্বাচন লড়বেন। এই বিষয়ে আপনাদের একটা তথ্য জানানো দরকার সেটা হল গত ে মোদীজি প্রার্থী হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের বারাণসী থেকে। সেখান থেকেই গতবার উনি নির্বাচনে লড়াই করেছিলেন।

কিন্তু এবারের লোকসভা নির্বাচন অর্থাৎ ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী কোথা থেকে লড়াই করবেন সেটা নিয়ে রাজনৈতিক মহল সহ সমগ্র দেশজুড়ে চলছে চরম কৌতূহল। এই প্রশ্নের উত্তরের অপেক্ষায় রয়েছেন দেশের মানুষ। অবশেষে সব অপেক্ষার হল অবসান। বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, এবারের লোকসভা নির্বাচনও মোদীজি লড়াই করবেন তার পূর্ব কেন্দ্র অর্থাৎ বারাণসী থেকে। আর এটাই মোটামুটি ভাবে চুড়ান্ত হয়ে গিয়েছে কারণ ইতিমধ্যেই তার ছাপ পড়তে শুরু হয়ে গিয়েছে বারাণসীতে।

উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশ, দেশের যেকোনো রাজনৈতিক দলের কাছে বেশ গুরুত্বপূর্ণ। তাই বিজেপির কাছেও এর ব্যতিক্রম কিছু নয়। তাই মোদীজি কোনো পরিস্থিতিতেই উত্তরপ্রদেশের রাশ আলগা করতে চান না। কারণ ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যের মোট ৮০ টি লোকসভা সিটের মধ্যে বিজেপি একক ক্ষমতায় দখল করেছিল ৭৩ টি সিট। তাই এবার যাতে আগেরবারের থেকেও বেশি সিট পেতে পারে সেইরকমই পরিকল্পনা মাফিক কাজ শুরু দিয়েছে বিজেপি শিবির। অপরদিকে মোদীজির বারাণসী থেকে নির্বাচনে লড়াই করা চুড়ান্ত দেখে এখন থেকেই বিরোধীদের ঘুম উড়ে গিয়েছে।
#অগ্নিপুত্র

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.