Press "Enter" to skip to content

নরেন্দ্র মোদীর বড়ো ফ্যান এই ৪ বিখ্যাত অভিনেতা। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এনাদের সাথে বহুবার বিশেষ কারণে দেখা করেছেন মোদীজি।

কিছু মানুষ ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করেন ঠিকই, কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর জোরালো ব্যাক্তিত্ব ও দৃঢ়তা থেকে কেউ বাঁচতে পারেন না। প্রধানমন্ত্রীর ভাষণকে সকলেই মনোযোগ সহকারে শোনেন, সেটা মোদীজির ভক্তরা হোক বা বিরোধী দলের নেতারা হোক। এছাড়াও বিশ্বের শক্তিশালী নেতারাও প্রধানমন্ত্রীর থেকে খুব প্রভাবিত হন এবং উনাকে ফলো করেন।২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হন তাও আবার পূর্নবহুমতের সাথে। এর পরেই দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য নেমে পড়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিদেশের সাথে ভারতের সম্পর্ক মজবুত করার জন্য অনেক বড়ো বড়ো পদক্ষেপ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদীজি। এমনকি দেশের মধ্যে বিভিন্ন যোজনা ও সচ্ছ ভারত অভিযানের মতো নীতি গুলির জন্য বড়ো ফিল্মিজগতের মানুষদের সাথে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এই কারণে ফ্লিম জগতের কিছু মানুষও মোদীজির ফ্যান হয়ে উঠেছেন। আপনারা জানলে অবাক হবেন নরেন্দ্র মোদীজির ব্যক্তিত্ব এতটাই শুদ্ধ ও দৃঢ় যে ফিল্মি জগতের ৪ অভিনেতা প্রধানমন্ত্রীকে সর্বদা ফলও করেন। এই কারণে এই ৪ অভিনেতা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে বহুবার দেখা করেও ফেলেছেন।

এরমধ্যে প্রথমেই রয়েছেন অক্ষয় কুমার যিনি বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সিনেমাও তৈরি করেন এবং দেশবাসীকে জাগ্রত করেন। আগের বছরের অক্ষয় কুমার ‘টয়লেট এক প্রেম কথা’ নামক একটা সিনেমা করেন যা সচ্ছ ভারত অভিযানে দেশের স্বার্থে বেশ লাভজন হয়েছিল। এই সিনেমার রিলিজের প্রথমেই মোদীজি অক্ষয় কুমারের সাথে দেখা উনাকে শুভ কামনা জানান। এমনকি এই সিনেমাটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র।মোদী নিয়ে দেখেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অক্ষয় কুমারের দেশাত্মবোধক শুটিংয়ের উপর বহুবার মন্তব্য করেছেন।

দ্বিতীয় আছেন দক্ষিণ ভারতের বিখ্যাত অভিনেতা বিজয় যিনি বেশিরভাগ একশন ভিত্তিক সিনেমা করেন। ইনি ইনার ক্যারিয়ার এ একের পর এক হিট মুভি দেশকে উপহার দিয়েছেন। বিজয় দক্ষিণ ভারতের সিনেমা জগতের মধ্যে ও পুরো ভারতে তার নাচের জন্য খুবই জনপ্রিয়। বিজয় বহু দেশপ্রেম ভিত্তিক মুভি করেবহেন এবং অনেক সিনেমার আগে উনি মোদীজির সাথে দেখা করেন।

বলিউডের দাবাং সালমান খানও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে পছন্দ করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সুনাম করতে ক্লান্ত হন না সালমান খান। জানা গেছে সালমান খান নরেন্দ্র মোদীজিকেই ২০১৯ এ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর সাথে ঘুড়ি উড়িয়েছেন সালমান খান। এর জন্য কট্টরপন্থী আসাউদ্দিন ওয়েশি সালমান খানকে বাজে ভাষায় গালি গালাজও করেছিল। কারণ একজন মুসলিম বিখ্যাত অভিনেতা হয়ে মোদীজির সাথে ঘুড়ি উড়াচ্ছেন এটা মেনে নিতে পারেনি ওয়েসী।

এছাড়াও রয়েছেন সিনেমা জগতের বাহুবলি অর্থাৎ প্রবাস। বাহুবলি ও বাহুবলী এর আরো একটা পার্টের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বেশ ভালো রকম প্রশংসা করেছিলাম প্রভাসের। মোদীজি প্রভাসের সাথে তোলা ছবিকেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়েছিলেন।

পাঠকদের জন্য প্রশ্ন: এই ৪ জন বিখ্যাত অভিনেতা মধ্যে আপনার প্রিয় কে?