Press "Enter" to skip to content

আরো একবার গেরুয়া ঝড়ে উড়ে গেল মোদী বিরোধীরা! ৭৯ শতাংশ জনগণের সমর্থন নরেন্দ্র মোদীকেই।

সাম্প্রতি দেশজুড়ে একটি সমীক্ষা করা হয়েছে মোদীজি কে নিয়ে। সেখানে দেখা গিয়েছে এখনকার ভারতীয় রাজনীতিতে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা দেশের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মহাশয়। প্রধানমন্ত্রী পদে বসার পর থেকে তার জনপ্রিয়তা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। এখন দেশের সবচেয়ে প্রিয় জননেতা মোদীজি। শুধু দেশেই নয় বিদেশেও মোদীজি বেশ জনপ্রিয় নেতা। জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে এখন তাকে টেক্কা দেবে এইরকম কেউ ভারতে নেই। কেউ আশেপাশে আসতেও পারে না । মোদীজির জনসভায় লোকের ভিড়, তার ভাষন শোনার জন্য লোকের মধ্যে আগ্রহ এইসব কিছু তারই প্রমান। সেই সমিক্ষা আরও জানিয়েছে যে, দেশের ৭৯% নাগরিক শের নির্বাচনে শুধুমাত্র মোদীজিকে দেখেই ভোট দেবেন।

আধারকে বাধ্যতামূলক করা থেকে শুরু করে, হটাৎ করে নোট বাতিল, বিনা পরিকাঠামোয় জিএসটি চালু করে দেওয়া। মোদীজির এইসব একের পর এক দেশহিতে সিদ্ধান্তের বিরোধীতায় সরব হন দেশের সামান্য একাংশের মানুষ। তারপর দেশের সমস্ত বিরোধীরাও মোদীজির বিরুদ্ধে শোরগোল শুরু করে দেন। তারপর বিরোধীরা বিজেপির গায়ে ধর্মীয় সংকীর্ণতার দাগ লাগিয়ে ভোটে ফায়দা তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু এতকিছুর পরও দেখা যাচ্ছে বিরোধীদের এত চক্রান্ত কোনো কাজে আসে নি। দেশের অধিকাংশ মানুষই মোদীজির সচিত্র পরিচয়পত্র হিসাবে আধারকে বাধ্যতামূলক করার পদক্ষেপ বা নোট বাতিল সবকিছু কে সমর্থন করছেন। ওই সমিক্ষায় দেখা যাচ্ছে যে, যদি এই মুহুত্তে ভোট হয় দেশজুড়ে তাহলে দেশের তিন ভাগের থেকেও বেশি মানুষ ভোট দেবেন বিজেপি কে।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম অনলাইনে দেশজুড়ে ৯ টি ভাষায় এই সমিক্ষা চালায়। এই সমীক্ষায় অংশ নেয় ৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ। তারা সকলেই তাদের মতামত জানায়। তাদের মতামতের ভিত্তিতে জানা যাচ্ছে যে, কংগ্রেসের নয়া প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধীকে মাত্র ২০% মানুষ ভোট দেবেন, যেটা খুবই হতাশাব্যঞ্জক রাহুল গান্ধির জন্য। সবচেয়ে বড়ো খবর হল দেশের ৭৩% মানুষই এখন বিজেপিকে চাইছেন কেন্দ্রে। তার কারন অবশ্যই মোদীজির দেশপ্রেম এবং দেশের জন্য মোদীজির করা বিভিন্ন জনকল্যাণমুখী কাজ। অনেকে আবার এটাও বলেছেন যে, গান্ধী পরিবার ছাড়া যদি অন্য কেউকে সভাপতি করা হয় তাহলে তারা কংগ্রেস কে ভোট দেওয়ার কথা ভাববেন। কিন্তু তাদের সংখ্যা খুবই কম।

এই সমিক্ষা থেকে এটা পরিষ্কার যে, দেশের সমস্ত বিরোধীরা মিলে একজোট হয়ে যতই মোদীজির বিরুদ্ধে কুৎস্য ছড়াক। যতই তারা ধর্মীয় রাজনীতির রঙ লাগানোর চেষ্টা করুক বিজেপির উপর। কিন্তু দেশের মানুষ কেন্দ্রে এখন শুধুমাত্র মোদীকেই চাইছেন। তারা মোদীজিকেই নিজেদের নেতা হিসাবে মেনে নিয়েছেন।
#অগ্নিপুত্র