Press "Enter" to skip to content

কাশ্মীর মামলা ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলা নয়, এটা আন্তর্জাতিক মামলা: অধীর চৌধুরী, কংগ্রেস নেতা।

ভারত দেশের জনগণের বহুদিনের ইচ্ছাকে মান্যতা দিয়ে এবং দেশকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে J&K থেকে ধারা 370 উঠিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। একইসাথে জম্মু-কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। মেহবুবা মুফতী ও ওমর আবদুল্লাহর পাশাপাশি হুরিয়ত ও কংগ্রেস কাশ্মীর থেকে 370 অনুচ্ছেদ অপসারণের তীব্র বিরোধিতা করছে। গতকাল কেন্দ্র সরকার রাজ্যসভায় 370 অনুচ্ছেদ অপসারণের ঘোষণা দিয়েছিল, কংগ্রেস রাজ্যসভায় এর তীব্র বিরোধিতা করেছিল। আর এখন লোকসভাতেও কংগ্রেস ধারা 370 বিলুপ্তের বিরুদ্ধে হাঙ্গামা শুরু করেছে। কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী এখন নতুন বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার মতো আচরণ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

আজ অধীর রঞ্জন চৌধুরী কাশ্মীর সমস্যাকে ভারতের অভ্যন্তরীন ইস্যু হিসাবে মানতে অস্বীকার করেন। উনি এটাকে আন্তর্জাতিক ইস্যু বলে গণ্য করেন। পাকিস্তান কাশ্মীরের বিষয়ে যে মতামত প্রকাশ করে অধীর রঞ্জন চৌধুরীও প্রায় একইরকম মত প্রকাশ করেছেন। পাকিস্তান গতকাল বলেছিল- কাশ্মীরের উপর ভারতের সিধান্ত নেওয়ার অধিকার নেই, কারণ এটা ইন্টারন্যাশনাল ইস্যু। আর অধীর রঞ্জন চৌধুরী আজ একই কথা বলেছেন। নিয়ম না মেনেই J&K ভাগ করা হয়েছে, এই অভিযোগ তুলেও কেন্দ্রের উপর আক্রমণ করেন অধীর চৌধুরী।

সিমলা চুক্তি, লাহোর চুক্তি সত্ত্বেও কিভাবে কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় তার উপর অমিত শাহের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলা নয় এটা আন্তর্জাতিক মামলা। কাশ্মীরের বিষয়ে ভারত একা একা সিদ্ধান্ত নিতে পারে না বলে মন্তব্য করেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। অভিযোগ উঠেছে, আজ লোকসভায় অধীর চৌধুরী বুঝিয়ে দেন কাশ্মীর ইস্যুতে যে কংগ্রেস ও পাকিস্তানের গলার সুর একই।