Press "Enter" to skip to content

‘অযোধ্যায় রাম মন্দির হলে মোদী, যোগীর মাথা কেটে ফেলা হবে”: গুলাম মুস্তাফা,AIMIM নেতা।

অযোধ্যায় তৈরি হলে হিন্দু ও হিন্দু সংগঠনদের ছাড়া যাবে না, এমনটাই খোলাখুলি ঘোষণা করলেন এর নেতা। প্রথমত জানিয়ে দি, একটা কট্টরপন্থী সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল। বর্তমানে যার নেতৃত্ব দেন আসাউদ্দিন ওয়েসী। আগে MIM নামে পরিচিত ছিল এবং এটা সেই দল যারা হায়দ্রাবাদকে পাকিস্থানের অন্তর্গত করতে চেয়েছিল। ভারতের মুসলিমদের ভুল বুঝিয়ে উস্কানি দিয়ে হিন্দুদের বিরুদ্ধে ব্যাবহার করার জন্য এর নেতারা কুখ্যাতি লাভ করেছে। সম্প্রতি এর বড়ো নেতা গুলাম মুস্তাফা আরো একবার ঘোর সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করেছেন। গুলাম মুস্তাফা বলেছেন নির্মাণ হলে হিন্দু ও হিন্দুসংগঠনগুলিকে ছাড়া যাবে না। শুধু এই নয় কট্টরপন্থী নেতা বলেছেন যদি নির্মাণ হয় তাহলে মোদী ও যোগীর হাত, মাথা কেটে ফেলা হবে।

জানিয়ে দি এটা কোনো গোপনভাবে নয় বরং এটা খোলা মঞ্চ থেকে বলেছেন কট্টরপন্থী নেতা গুলাম মুস্তাফা। স্মরণ করিয়ে দি, দেশের পূর্ব উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারী অবসর নেওয়ার সময় বলেছিলেন, দেশের মুসলিমরা খুব ভয় পেয়ে রয়েছে, হিন্দুরা খুব বিপদজনক। শুধু এই নয়, হামিদ আনসারী বলেছিলেন এই দেশে মুসলিমদের জীবনযাপন করা কঠিন হয়ে পড়েছে। তবে আসলে মুসলিমরা ভারতে কিভাবে রয়েছে তা কট্টরপন্থী AIMIM নেতা গুলাম মুস্তাফার মন্তব্যেই জানা যাচ্ছে।

একদিকে মুসলিম নেতা গুলাম মুস্তাফা কট্টর সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করছে অন্যদিকে হামিদ আনসারী হিন্দুদের বিপদজনক বলে মুসলিমদের নিরীহ সাজাচ্ছে। গুলাম মুস্তাফা খোলাখুলি জনগণ দ্বারা নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর মাথা কেটে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে অন্যদিকে মিডিয়া এই খবর দাবিয়ে রাখার জন্য লেগে পড়েছে। আসলে এরা সেই সমস্থ মিডিয়া যারা কিছুদিন আগেই দাবি করেছিল রামভক্তদের ভয়ে থেকে মুসলিমরা পলায়ন করছে।

দেশের অধিকাংশ মিডিয়া বামপন্থী ও কংগ্রেসের দালাল যার কারণে এই সমস্থ খবর লুকিয়ে রেখে মুসলিম পলায়নের মিথ্যা খবর ছড়িয়ে দেয়। অবশ্য, দেশে কট্টরপন্থীদের সংখ্যা যত বাড়বে ততই এমন মন্তব্য শোনা যাবে। কট্টরপন্থীদের সংখ্যা বাড়তে থাকলে এই মন্তব্যগুলোকে বাস্তবেও পরিণত করে দেখাবে যেমনটা ১৯৯০ এর দিকে হিন্দু পন্ডিতদের সাথে করা হয়েছিল।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.