Press "Enter" to skip to content

বেরিয়ে এলো চমকে দেওয়ার মত সার্ভে! ২০১৯ এ মোদীর উপর ভরসা রাখতে রাজি দেশের এই বিশাল সংখ্যক মানুষ।

লোকসভা নির্বাচনে 2019 এর দিন ঘোষণাতে আর মাত্র কিছু দিন এর বাকি। কিন্তু রাজনৈতিক মহল দিন এর পর দিন উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। উত্তরপ্রদেশ এ মোদি সরকার কে বাধা দেবার জন্য সপা ও বাসপা আর মধ্যে জোট বেঁধেছে অন্যদিকে এ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বনার্জী ও এক আলাদা জোটে এর সূচনা করেছ তাই মোদি কাছে এটি একটা বিরাট চ্যালেঞ্জ। সমস্ত অবিজেপি দল গুলির একটাই লক্ষ্য যেভাবেই হোক 2019 এ মুক্ত দেশ গঠন করা। কিন্তু মোদি সরকার ও পিছু হাটছে না যতই বাঁধা আসুক তিনি তার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন পিছু হাটার ব্যাক্তি তিনি ও নন। বিজেপির রাষ্ট্র সভাপতি অমিত শাহ দাবি করেছেন তারা 2014 থেকে বেশি সিট পেয়ে 2019 এ জয়ী হবেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন এটা হলো একটা স্বার্থের জোট।এই জোট এর একমাত্র লক্ষ্য হলো প্রধানমন্ত্রী পদ আর উপর লোভ র লালসা। কিন্তু সব এ হলো জনগণ এর হাতে। এই অবস্থায় আজ টাক সংবাদ মাধ্যম লোকসভা ভোট এর আগে একটা সার্ভে করে সেই সার্ভে তে সাংবাদিক রা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে মানুষ কে জিজ্ঞাসা করে যে তারা কি আবার মোদি সরকার কে চাই নাকি জোট সরকার চাই!

প্রায় 70% মানুষের কাছ থেকে উত্তর আসে তারা আবার 2019 এ মোদি কেই দেখতে চায় তাদের এখনো মোদি সরকার এর উপর ভরসা আছে। দেশের জনগণ মোদী সরকারের এই সাড়ে চার বছরে কাজের উপর যথাযত খুশি ব্যাক্ত করেছে। সরকার দেশের সমস্থ বর্গের মানুষের সঠিকভাবে খেয়াল রেখেছে বলেই উঠে এসেছে সার্ভেতে।

সার্ভে সামনে আসার পর বিজেপির রাষ্ট্রীয় প্রবক্তা এর থেকে বোঝা যাচ্ছে মোদি সরকার এর কাজ এর প্রভাব মানুষের মনে অনেক আঁচ ফেলেছে।প্রতা মানুষ বুঝতে পেরেছে দেশ এর হিট এ একমাত্র নরেন্দ্র মোদি কেই দরকার। কংগ্রেস এর 70 বছর ধরে যেভাবে মানুষ কে প্রতারণা করেছে তা আর কারো বুঝতে বাকি নেই।
তাই সবার মুখে একটাই কথা “ফির আয়েগে মোদি সরকার”

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.