Press "Enter" to skip to content

এবার পুরো দেশে কংগ্রেস না রাজত্বে আসবে না রাহুল প্রধানমন্ত্রী হবে ! ওকিলেশ দিলেন কংগ্রেসকে বড়সড় ঝটকা

দেশের ক্ষমতায় মোদী সরকার আসার পর থেকেই কংগ্রেসের জন্য একের পর এক দুঃসংবাদ এসেছে। মোদী সরকার আসার পর দেশ থেকে প্রায় মুছে যেতে চলেছে কংগ্রেস পার্টি। কারণ দেশের সাধারণ মানুষের কাছে এত দিন পরিস্কার হয়ে গিয়েছে কংগ্রেসের মুখোশ আর এই কাজ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর সেই জন্যেই কংগ্রেসের উপর থেকে বিশ্বাস উঠে গিয়েছে জনগণের। এর ফল হারে হারে টের পেয়েছে কংগ্রেস দল। আর এবার আবার একবার কংগ্রেসের জন্য এল খারাপ খবর। এবার দেশের অন্যতম বৃহত্তম রাজ্য উত্তরপ্রদেশে মুখ থুবড়ে পড়ল কংগ্রেস। আর এই খবর পাওযার পর রীতিমতো চমকে গিয়েছে রাহুল গান্ধী সহ পুরো কংগ্রেস দল।এতদিন পর্যন্ত রাহুল গান্ধীর সবচেয়ে চিন্তার কারণ ছিল বিজেপি দল। আর এবার সেই দলে নাম যুক্ত হল আরেক রাজনৈতিক দলের আর সেটা হল উত্তরপ্রদেশের অন্যতম বৃহত্তম রাজনৈতিক দল যাদবের সমাজবাদী পার্টি।

এইদিন এক সাংবাদিক সম্মেলন করে কংগ্রেস কে এই মুহূর্তে সবথেকে বড় ঝটকা দিলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাপ্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। উনার এইদিনের সাংবাদিক সম্মেলনের পর বোঝায় যাচ্ছে যে ২০১৯ শের লোকসভা নির্বাচনে দেশে ক্ষমতায় কংগ্রেসের আসার সম্ভাবনা একদম নেই , সেই সাথে রাহুল গান্ধীর প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন চিরকাল স্বপ্নই থেকে যাবে। কিন্তু এইদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে কি এমন বললেন অখিলেশ যাদব? এই ব্যাপারে বিস্তারিত নীচে আলোচনা করা হয়েছে।এইদিনের এই সাংবাদিক সম্মেলনে এসে অখিলেশ যাদব পরিস্কার ভাবে জানিয়ে দিলেন যে উনার পার্টি অর্থাৎ উত্তরপ্রদেশের প্রাপ্তন শাসক দল সমাজবাদী পার্টির কোনো ভাবেই ২০১৯ শের মহাজোটবন্ধবে সামিল হবে না।উনি এই দিন পরিস্কার ভাষায় জানিয়ে দিলেন যে ২০১৯ সালে উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেস জোটবদ্ধ হতেই পারে কিন্তু সেই জোটে কোনো ভাবেই সামিল উনি হবেন না উনি বা উনার দল।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে কংগ্রেস মধ্যপ্রদেশের বিধানসভায় জয়লাভ করলেও তার দলের কোনো বিধায়ক কে মন্ত্রীর পদ দেন নি; আর এই জন্যই কংগ্রেসের উপর কিছুটা রেগে রয়েছেন অখিলেশ যাদব। উনি এই প্রসঙ্গে বলেন যে, কংগ্রেস যেভাবে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে সেটা কোনো ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কারণ কংগ্রেস শুধু নিজেদের স্বার্থের দিক টা দেখে অন্য পার্টির কোনো মর্যাদা দিতে জানে না। আর উত্তরপ্রদেশের প্রাপ্তন মুখ্যমন্ত্রীর এই কথা শোনার পর রাজনৈতিক মহল মনে করছেন যে, এমনিতেই কংগ্রেসের বেশ শোচনীয় অবস্থা করে দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। আর এমন পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের উপর থেকে সমাজবাদী পার্টির মুখ ফিরিয়ে নেওয়া লোকসভা ভোটের আগে কংগ্রেস দলের জন্য খুবই খারাপ সংকেত।এছাড়াও এইদিন অখিলেশ যাদব বলেন যে, আগে আমি বিজেপি কে ক্ষমতা থেকে সরানোর জন্য কংগ্রেস কে খুব সমর্থন করতাম।

মহাজোটবন্ধনের জন্য সবচেয়ে বেশি প্রচার করতাম, কিন্তু কংগ্রেসের এই আসল মুখোশ সামনে আসার পর আর কোনো জোটবন্ধন নয়। আর এই ভাঙনের ফলে উত্তরপ্রদেশের আরও অনেক বেশি জোরদার হয়ে গেল যোগী আদিত্যনাথের বিজেপি সরকার।
#অগ্নিপুত্র

10 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.