এবার দাউদ ইব্রাহিম পড়তে চলেছে ফাঁদে! ভারত আমেরিকা একত্রে নেবে এই পদক্ষেপ।

এবার আমেরিকা পলাতক দাউদ ইব্রাহিম ও তার সহযোগীদের উপর ফাঁদ পাততে শুরু করেছে। যার জন্য এবার দাউদের জিবন সমস্যায় পড়তে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। জানিয়ে দি, দাউদের অধিকতর সম্পত্তি আমেরিকা এবং নগদ আমেরিকা ও আমেরিকার ব্যাঙ্কে রয়েছে। আমেরিকা দাউদের এই সম্পত্তির বাজেয়াপ্ত করতে চলেছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। আমেরিকার এই পদক্ষেপের ঘোষণার পর থেকে দাউদ ও তার সাথীদের মধ্যে হৈচৈ শুরু হয়ে গিয়েছে। আসলে আমেরিকা এক চুক্তি মারফত এই পদক্ষেপ নিতে চলেছে। ভারত ও আমেরিকার মধ্যে বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৬ সেপ্টেম্বর একটা চুক্তি হয়েছে । এই চুক্তির মধ্যে একদিক অত্যাধুনিক হাতিয়ার, মিসাইল ও টেকনিকের ব্যাপারে চুক্তি হয়েছে তেমনি অন্যদিকে আতঙ্কবাদীদের উপর শিকঙ্গা কষে দিতে আমেরিকার ভারতের সাথে এক হয়েছে।

এই চুক্তির মধ্যেই আমেরিকা পলাতক আন্ডারওয়ার্ল্ড দাউদের উপর পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছে। বিদেশে থেকে যে দাউদ আতঙ্কবাদ ছড়িয়ে অন্য দেশের সমস্যা সৃষ্টি করে এখন এই চুক্তির পর সে নিজেই সমস্যায় পড়েছে। আমেরিকা ও ভারতের বার্তার সময় ডি কোম্পানির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যাপারে আশস্থ করেছে। আমেরিকার রক্ষামন্ত্রী মাইক বলেন আমরা আতঙ্কবাদের কড়া নিন্দা করছি। আতঙ্কবাদ এমন একটা ইস্যু যা কোনো দেশকে বহু বছর পেছনে ফেলে দিতে পারে।

কিন্তু তা সত্ত্বেও কিছু দেশ নিজের প্রভাব দেখানোর জন্য এবং অন্য দেশকে ভীতগ্রস্ত করার জন্য এই ধরণের কর্মকান্ড করে থাকে। আমেরিকা ও ভারত এই বার্তার পর একটা সংযুক্ত মন্তব্য করে। যেখানে বলা হয়েছে ভারত ও আমেরিকা আতঙ্কবাদের উপর লাগাম লাগানোর জন্য ও ডি কোম্পানির মতো আতঙ্কবাদী সংগঠনের জন্য ২০১৭ থেকেই একটা অভিযান শুরু করেছে।

যার কাজ এখনো জারি রয়েছে। এই অভিযানের কারণেই ইরান, ইরাক ও পাকিস্থানের উপর আমরা অঙ্কুশ লাগিয়েছি। জানিয়ে দি আতঙ্কবাদী ও জঙ্গি সংগঠন গুলির ভয়াবহতার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক মহলে ভারত সর্বপ্রথম মুখ খুলেছিল এবং সমগ্র বিশ্বকে আতঙ্কবাদের ফলাফলের ব্যাপারে সচেতন করেছিল। এখন ভারতের সাথ দিয়ে সমগ্র দেশ এক হয়ে আতঙ্কবাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর জন্য প্রস্তুত হয়েছে। আর এখন ভারতের প্রস্তাবের পরেই আমেরিকা পলাতক দাউদ ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত হয়েছে।

you're currently offline

Open

Close