Press "Enter" to skip to content

সভা করতে এসেই ছক্কা মারলেন অমিত শাহ! এক ঘোষণাতেই খুশি করলেন রাজ্যবাসীকে।

মমতার এত বাধার পরেও আজ বাংলার মাটিতে পদার্পণ করলেন বিজেপির এর চাণক্য । শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি কিছুদিন রাজনীতি থেকে দূরে ছিলেন কিন্তু সুস্থ হবার সাথে সাথে থাবা বসলেন বাংলার মাটিতে।লক্ষ্য বাংলা জয় তথা পশ্চিমবঙ্গে প্রতিষ্ঠা।
যেমন করে হোক এই বাংলার লোকতন্ত্র বাঁচানো তার প্রধান উদ্দেশ্য এবং বাংলার এই স্বৈরাচারী  নৃশংস সরকার কে সরিয়ে বাংলায় পদ্মফুল ফোটানো। তবে আজ অমিত শাহ বাংলার জনগণের উদ্দেশ্যে যা ঘোষণা করলেন তা শুনলে রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা অনেকটাই স্বস্থির নিঃস্বাস ফেলবে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে ঘুচবে বেতন বৈষম্য আজ এমন এই আশ্বাস দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি শ্রীমান অমিত শাহজি।

পশ্চিমবঙ্গের সরকারি কর্মচ্যারি দের বেতন কমিশন নিয়ে ক্ষোভ দিন এর দিন বেড়েই চলেছে তা স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে বিগত কয়েক মাস ধরেই,যেখানে অন্য বিজেপি শাসিত রাজ্যে সপ্তম বেতন কমিশন শুরু হয়ে গেছে সেখানে এখনো বাংলায় পঞ্চম বেতন কমিশন নিয়ে পড়ে আছে রাজ্য কর্মচারিরা। অমিত শাহজি আজ মালদার সভায় ঘোষণা করেন যদি 2021 এ আমাদের সরকার বাংলায় আসে তাহলে আমরা মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক এই সমাধান করবো বেতন কমিশন সংক্রান্ত সমস্যা আর বকেয়া da সংক্রান্ত সমস্যা।

এইদিন অমিত শাহ হুঙ্কার আর সাথে রাজ্য সরকারকে বলেন এখনো বাকি রাজ্য সরকার কর্মকচারীদের da, কোথায় যাচ্ছে এত টাকা সব খুঁজে বের করবে বিজেপি।আর এটাও বলেন আমাদের পার্টি রাজ্য সরকারি কর্মী দের পাশে আছে তাদের যেকোনো আন্দোলন আমরা সঙ্গে আছি। বিজেপির চাণক্য নামে পরিচিত অমিত শাহ এর এই ঘোষনার পর বিজেপি অনেকটাই রাজ্যের কর্মীদের মন জয় করতে পারছে তা ভলোরকম বোঝা যাচ্ছে।

এই ঘোষনা মমতা সরকার এর বড় রকমের ক্ষতি করবে এমন দাবিও উঠে এসেছে রাজনৈতিক মহলের। আপনাদের জানিয়ে রাখি এই বছর এ রাজ্য কর্মচারী দের নাম মাত্র সরকার 15% da বৃদ্ধি করেছে যাতে অনেকটাই ক্ষোভ কর্মচারী দের এবং রাজ্য কর্মচারি সংস্থা গুলির। এবং এখনো অবদি সংস্থা গুলি আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।যার চাপে পড়ে অনেকটাই অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার।তাই চাণক্য অমিত জি এই ঘোষণা যে আরো চাপে ফেললো রাজ্য সরকারকে।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.