Press "Enter" to skip to content

মাত্র ১৬ বছর বয়সে জঙ্গি হামলা করে ৩১ জনকে আহত আর ২ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো এই খুদে জঙ্গি!

জম্মুর এক বাস স্ট্যান্ডে গ্রেনেড হামলা করা জঙ্গির বয়স ১৬ বছরের ও কম। এই ঘটনায় দুজন নিরীহ ব্যাক্তির প্রাণ যায়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে জানায়, এর এক ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে তাঁকে দিয়ে এই কাজ করায়।

খুদে জঙ্গি ইয়াসির ভাট

এই মাসের ১২ তারিখে ১৬ বছরের হতে যাচ্ছিল এই কিশোর জঙ্গি। বৃহস্পতিবার বাস স্ট্যান্ডে গ্রেনেড ফেলে পালানর সময় তাঁকে হাতেনাতে ধরে ফেলেছিল জনতা। এই ঘটনায় দুজনের মৃত্যু হয়, আর ৩১ জন আহত হয়। আধিকারিকরা জানায়, জিজ্ঞাসাবাদের সময় কিশোর জঙ্গি জানায়, তাঁকে এই কাজ করার জন্য হিজবুলের এক জঙ্গি ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিল।

আধিকারিকরা জানায় যে, তাঁর আধার কার্ড, স্কুল রেকর্ড সমেয় সমস্ত রকম পরিচয় পত্র এবং বার্থ সার্টিফিকেটে তাঁর জন্মতিথি ১২ই মার্চ ২০০৩ লেখা আছে। তদন্তকারীদের মতে, কুলগাঁও জেলার স্বঘোষিত হিজবুল মুজাহিদ্দিন এর প্রধান ফৈয়াজ জম্মুর একটি জনবহুল এলাকায় গ্রেনেড ফেলার কাজ সংগঠনের ভুমিগত জঙ্গি মুজাম্মিলকে দিয়েছিল।

মুজাম্মিল সেই কাজের দ্বায়িত্ব নিয়ে গ্রেনেড ফেলার কাজ ইয়াসির ভাট নামক ওই নাবালক জঙ্গির হাতে তুলে দেয়! নাবালক জঙ্গির আরও একটি ভাই ও বোন আছে। তিন ভাই বোনের মধ্যে ও সবথেকে বড়। আর তাঁর বাবা রঙ করার কাজ করে।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.