Press "Enter" to skip to content

বড় খবরঃ মোদী বিরোধিতার লক্ষ্যে মিথ্যে খবর প্রকাশিত করলো আনন্দবাজার পত্রিকা ( anandabazar patrika ) কার দালালি করছেন এনারা ?

সংবাদ মাধ্যমকে দেশের চতুর্থ স্তম্ভ বলে মানা হয়। কিন্তু কিছু সংবাদ মাধ্যম নিজেদের প্রপোগান্ডা চালানোর জন্য অনবরত ভুয়ো তথ্য মানুষের সামনে তুলে ধরে মানুশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যায়। সেরকমই আমাদের এরাজ্যের সবথেকে নির্ভরযোগ্য পত্রিকা বলতে আমরা পত্রিকা /  anandabazar patrika এর নাম শুনে এসেছি।

ক্যাগের রিপোর্ট নিয়ে আমাদের করা সংবাদ

কিন্তু সম্প্রতি / patrika সাংবাদিকতা ছেড়ে রাজনীতিতে বেশি মত্ত হয়েছে। ওরা এখন নিজেদের সংবাদপত্র না মনে করে রাজনৈতিক দল মনে করছে। তাই নানা ভাবে দেশের তথা কেন্দ্র সরকারের বিরোধিতা করেই চলেছে এরা। এরা দেশের সেনার পাশে না দাঁড়িয়ে পাথরবাজ আর জঙ্গিদের সহমর্মিতায় ছাপে বেশি।

ক্যাগের রিপোর্ট নিয়ে 24 ঘণ্টার সংবাদ

এরা উরি হামলার পর সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি করা সিনেমা ‘ উরি – দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ” নিয়েও মজা উড়িয়েছিল। মোদী সরকার আসার পর আনন্দবাজারআনন্দবাজার পত্রিকা ( ) হয়ে উঠেছে মোদী বিরোধী প্রধান আখড়া। মোদী বিরোধী যেকোন সংবাদ মাধ্যম করতে পারে। তাতে কোন অসুবিধে নেই। কিন্তু মোদী বিরোধিতায় মত্ত হয়ে ভুয়া খবর কি সাংবিধানিক আর গণতান্ত্রিক?

ক্যাগের রিপোর্ট নিয়ে ইন্ডিয়াটাইমস বাংলার সংবাদ

আর সেই ভুয়া খবরের মধ্যে আনন্দবাজার পত্রিকার আজকের প্রতিবেনটি যোগ হল। আজ সংসদে ক্যাগের রিপোর্ট পেশ হয়েছে। যেখানে স্পষ্ট ভাষায় লেখা আছে যে, কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ আমলের থেকে বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ আমলে রাফাল বিমান অনেক সস্তায় কেনা হয়েছে।

আনন্দবাজার পত্রিকার সেই ভুয়ো সংবাদ

এমনকি প্রাক্তন সরকারের আমলে করা নিয়ে ডেলিভারির সময় এর থেকে বিজেপির আমলে করা রাফাল চুক্তির ডেলিভারি টাইম পাঁচ গুন ভালো। এমনকি কংগ্রেসের আমলে রাফাল চুক্তির থেকে বিজেপির আমলে করা রাফাল চুক্তিতে ১৭.০৮ শতাংশ টাকা বাছিয়েছে মোদী সরকার।

কিন্তু আনন্দবাজার পত্রিকাআনন্দবাজার পত্রিকা ( anandabazar patrika ) এসব শুনতে অথবা জানতে চায়না। তাই তাঁরা নিজের মত সংবাদ ছেপে মানুষকে বিভ্রান্ত করার কাজ শুরু করে দিয়েছে। তাঁদের আজকের প্রতিবেদনে স্পষ্ট লেখা আছে যে, কংগ্রেস আমলের থেকেও অনেক বেশি দামে রাফাল চুক্তি সেরেছে মোদী সরকার।

এমনকি আনন্দবাজার পত্রিকাআনন্দবাজার পত্রিকা ( anandabazar patrika ) এটাও লিখেছে যে, কংগ্রেস আমলের চুক্তিতে ডেলিভারি সময়ের সাথে বিজেপির আমলের চুক্তিতে ডেলিভারি টাইম প্রায় সাত থেকে আট মাস পিছিয়ে! এ কেমন গণতন্ত্র আনন্দবাজার পত্রিকার ? এরকম করে ছেপেই কি যুদ্ধে জেতা যাবে?

শুধু মোদী সরকারের বিরধিতাই না, আনন্দবাজার পত্রিকা ( anandabazar patrika ) আমাদের সবার প্রিয় নেতাজিকে নিয়েও এমন একটি খবর ছেপেছিল, যেটা দেখে ক্ষোভে ফেটে পরেছিল সব বাঙালি এবং দেশের মানুষ। তাছাড়াও এক সময় এরা আদিবাসী মহিলাদের নিয়েও চরম কু মন্তব্য করেছিল, যার জেরে আদিবাসী সমাজ আনন্দবাজার পত্রিকা বয়কটের ডাক দিয়েছিল।

 

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.