Press "Enter" to skip to content

ভারতের চাপে ঝুঁকল অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী, তুলে নেওয়া হবে মেহুল চোকসির নাগরিকতা! জলদিই করা হবে ভারতে পাঠানোর ব্যাবস্থা

পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্ক দুর্নীতি ( PNB SCAM ) এর অভিযুক্ত মেহুল চোকসিকে খুব শীঘ্রই ভারতে আনা হবে। মেহুল এখনো পর্যন্ত অ্যান্টিগুয়াতে আছে, কিন্তু ওখানকার প্রধানমন্ত্রী গ্রেস্টন ব্রাউন জানিয়েছেন যে, তিনি খুব শীঘ্রই মেহুলের নাগরিকতা তুলে নিতে চলেছেন। উনি জানান, মেহুল এর মামলায় লাগাতার ভারতের তরফ থেকে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে।

অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রীর এই বয়ানের পর মেহুলকে ভারতে আনার রাস্তা সাফ হয়ে গেলো। PNB দুর্নীতিতে মেহুল চোকসি আর নীরব মোদীর উপরে ১৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক তছরুপের অভিযোগ আছে। ২০১৮ সালে এই মামলা সামনে আসে, আর তখন থেকেই বিরোধীরা মোদী সরকারকে এই ইস্যু নিয়ে আক্রমণ করে আসছে।

অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী অনুযায়ী, মেহুল চোকসিকে প্রথমে ওই দেশের নাগরিকতা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার সেটিকে তুলে নেওয়া হবে, আর তাঁকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে। অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী জানান, আমরা কোন এমন ব্যাক্তিকে দেশে রাখতে চাইনা, যার উপর কোন প্রকারের অভিযোগ আছে।

অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী গ্রেস্টন ব্রাউনের অনুযায়ী, এখন ওই দেশে মেহুল চোকসির জন্য কোন প্রকারের আইনি সুবিধা উপলব্ধ না। এর ফলে সে আর আইনের সাহার নিয়ে বাঁচতে পারবে না। আর এবার তাঁর ভারতে ফিরে যাওয়া একবারে নিশ্চিত।

অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী জানান, এখন মেহুল চোকসির মামলা আদালতে আছে, এরজন্য আমাদের পুরো প্রক্রিয়ার পালন করতে হবে। অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি এই ব্যাপারে ভারত সরকারের কাছে সম্পূর্ণ তথ্য দেবেন। যদিও, মেহুল চোকসিকে সমস্ত আইনি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার সময় দেওয়া হবে। যখন তাঁর কাছে আর কোন আইনি প্রক্রিয়া উপলব্ধ থাকবে না, তখন তাঁকে ভারতে পাঠানো হবে।