যদি আদর্শ হতে চান তাহলে আমির খান, ওয়েসীকে অনুসরণ না করে ডঃ আবদুল কালামকে স্মরণ করুন। কারণ…

আজ ১৫ অক্টোবর দেশের রত্ন ডক্টর কালামের জন্মদিবস। আমির খান, হামিদ আনসারীর মতো লোকজন প্রচার করে বেড়ায় যে হিন্দুবহুল ভারত দেশ অসহিষ্ণু দেশ, ভারতে মুসলিমেরা সুরক্ষিত নয়। ভারতের হিন্দুদের কট্টর বলে প্রচার করে আমির খানের মতো লোকেরা। কিন্তু এই আমির, হামিদের মতো লোক যে মিথ্যা প্রচার করে তা আজকের দিনে প্রমান হয়ে যায়। কারণ হিন্দুবহুল ভারত যদি অসহিষ্ণু হতো তাহলে মুসলিম ধর্মের মানুষ কালামকে এত সন্মান কেন করতো। আজ পূর্ব রাষ্ট্রপতি তথা ভারতরত্ন আব্দুল কালামের জন্মদিবস। আজ প্রত্যেক হিন্দু আব্দুল কালামের জন্মদিবস পালন করেছে।

আজ পুরো দেশ উনাকে স্মরণ করছে, যদি ভারত অসহিষ্ণু হতো তাহলে কি কালামকে শ্রদ্ধা করতো? ভাবার বিষয় এই যে, কোনো ইসলামিক সংগঠন কালামের জন্মদিবস পালন করেনি কিন্তু যে হিন্দু সংগঠনগুলিকে কট্টর বলা হয়, অসহিষ্ণু বলা হয় তারা প্রত্যেকে এই মহান ব্যাক্তির জন্মদিবস পালন করেছে। আসলে কট্টরপন্থী তো সেইসব জিহাদিরা যারা ইসলামের নামে আব্দুল কালামকে কাফের বলে ঘোষণা করে, রমেশ্বরামে কালামের মূর্তি ভাঙার কথা বলে।

আজ পুরো দেশ ডক্টর কালামের জীবনকে স্মরণ করছে, উনার আদর্শ, উনার পরিশ্রমকে স্মরণ করছে। ডঃ কালাম কখনো ইসলামের নামে ভুলভাল মন্তব্য করেননি, কখনো ধর্মকে দেশের থেকে বড়ো বলেননি যার ফলে আজ দেশ উনাকে অমর করে দিয়েছে।

দেশের যুব সমাজের উচিত আসাউদ্দিন ওয়েসী, আমির খানের মতো ভণ্ড কট্টরপন্থী লোকেদেরকে নিজের আদর্শ না বানিয়ে ডঃ কালামের মতো ব্যাক্তিদের আদর্শ হিসেবে রাখা যাতে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে এবং দেশে নিজেদের ছাপ ছেড়ে যেতে পারে।

you're currently offline

Open

Close