Press "Enter" to skip to content

আতঙ্কবাদীদের বাঁচানোর জন্য সেনাকে ঘিরে ফেলেছিল ১০০ জন পাথরবাজ! এরপর সেনা যা করলো ..

জম্মুকাশ্মীরে পুনরায় সাফাই অভিযান শুরু করে দিয়েছে। গতকাল কাশ্মীরে ৩ আতঙ্কবাদীকে মেরে ফেলা হয়েছে। পরশুদিনও সাতসকালে ২ জঙ্গিকে মেরে ফেলেছে। আতঙ্কবাদীদের সেনার হাত থেকে বাঁচানোর জন্য ধার্মিক উন্মাদীরা কাশ্মীরে পাথরবাজদের সক্রিয় করতে শুরু করেছে। সম্প্রতি রাজধানী শ্রীনগরে ১০০ থেকে বেশি মিলে সিআরপিএফ এর একটা গাড়িকে ঘিরে ফেলেছিল। এই গাড়ির মধ্যে সিআরপিএফের একজন বড় আধিকারিকও বসে ছিলেন। পাথরবাজদের পুরো দল খুবই উগ্র ছিল এবং ইসলামিক শ্লোগান নিয়ে সিআরপিএফ এর গাড়িকে উল্টে দেয়ার চেষ্টা করছিল।

কিছু পাথরবাজ সেনার গাড়ির কাঁচ ভেঙে আধিকারিকদের টেনে বার করার চেষ্টা করতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে জিপ চালানো জওয়ান গাড়ি পাথরবাজদের উপর চালিয়ে দেয়। গাড়ি ৩ পাথরবাজের উপর দিয়ে বেরিয়ে চলে আসে। এই ঘটনায় ১ কট্টরপন্থী পাথরবাজ তৎক্ষণাৎ মারা যায় এবং আরো ২ জনকে উগ্রবাদীরা তুলে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

এই ঘটনা শ্রীনগরের জামা মসজিদের সামনে ঘটেছে। সেনারা লাগাতার আতঙ্কবাদীদের খুঁজে খুঁজে মারতে শুরু করেছে যার উপর ক্ষোভ দেখিয়ে পাথরবাজরা প্রদর্শন শুরু করেছিল। সেই সময় নৌহাট্টা এলাকায় সিআরপিএফ এর একটা গাড়ি পার হচ্ছিল। জামা মসজিদের পাশ হয়ে পেরোতে গেলেয় কট্টরপন্থী পাথরবাজরা ধার্মিক শ্লোগান দিয়ে সেনার গাড়ি ঘিরে ফেলে।

পাথরবাজিরা গাড়িকে ঘিরে পাথর ছুঁড়তে শুরু করে এবং গাড়িকে পাল্টে দেওয়ার চেষ্টা করে। এরপর চালক জওয়ান বুদ্ধিমত্তা দেখিয়ে গাড়ি ধার্মিক উন্মাদীদের উপর চালিয়ে দেয় এবং তিনজন কট্টরপন্থীকে পিষে দেয়। এর ফলে গাড়িতে থাকা জওয়ানরা সুরক্ষিত বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়। তবে সেনার এই গাড়ি চালানোর ঘটনা এই প্রথম নয়, এর আগেও সেনা পাথরবাজদের উপর এই কার্য করে দেখিয়েছে। যদিও কংগ্রেসি ও বামপন্থীরা এটাকে মানবাধিকারের হনন বলে দাবি করেছে। সেনা কাশ্মীরিদের উপর অত্যাচার চালিয়েছে বলেও অভিযোগ তুলেছে বহু নেতা। যদিও বিজেপি পার্টি সরাসরি বুক ফুলিয়ে সেনাকে ও সেনার কাজকে সমর্থন জানিয়েছে।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.