Press "Enter" to skip to content

দিল্লীতে বিনামূল্যে বিদ্যুতের প্রকৃত সত্য, নির্বাচনের পর লাগবে পয়সা! দেখে নিন কেজরীবাল সরকারের অর্ডার

নয়া দিল্লীঃ নিজের বিতর্কিত বয়ানের জন্য সর্বদাই শিরোনামে থাকা দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবালের রাজনীতি বেশিরভাগই মিথ্যে প্রতিশ্রুতি আর নাটক দিয়ে গড়া বলেই দাবি বিরোধী শিবিরের। মিথ্যের রাজনীতি করা কেজরীবালের আরেকটি মিথ্যে সামনে এলো। এবার প্রকাশ্যে এলো দিল্লীতে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়ার প্রকৃত সত্য। প্রসঙ্গত, অরবিন্দ কেজরীবাল বলেছেন যে, ওনার সরকার দিল্লীর জনতাকে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুতের বিল বিনামূল্যে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আর এই সিদ্ধান্তে দিল্লীবাসীর অনেক লাভ হবে। কিন্তু ওনার এই জনমুখি প্রকল্পের প্রকৃত সত্য হল, সরকার শুধুমাত্র আসন্ন নির্বাচনকে মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নির্বাচন মিটে গেলে আবার সবাইকে বিদ্যুতের জন্য বিল দিতে হবে।

দিল্লী বিধানসভার আধিকারিক ওয়েবসাইটে বিনামূল্যে বিদ্যুতের বিল নিয়ে যেই নথী উপলব্ধ আছে, সেটার অনুসারে, শুধু ৩১ মার্চ ২০২০ অবধি ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিনামূল্যে বিদ্যুত দেওয়া হবে। দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল নিজের নির্বাচনী প্রচারের জন্যই জনতার সামনে মাত্র কয়েকমাসের জন্য এই লোভনীয় প্রকল্প এনেছেন। গত লোকসভা নির্বাচনে দিল্লীতে সাতটির মধ্যে সাতটি আসন হেরে যাওয়ার পর অরবিন্দ কেজরীবাল এরকমই কিছু লোভনীয় প্রকল্প দিল্লীবাসীকে দিয়েছেন।

কেজরীবালের বিনামূল্যে বিদ্যুৎ নিয়ে উনি সম্পূর্ণ তথ্য না দিলেও, সোশ্যাল মিডিয়ায় ওনার মিথ্যে প্রকাশ্যে চলে এসেছে। দিল্লীর বিনামূল্যে বিদ্যুতের সত্য এখন সবার সামনে আসার পর ফের অস্বস্তিতে কেজরীবার সরকার। সোশ্যাল মিডিয়ায় দিল্লী সরকারের এই অর্ডার এখন আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ছে। আর এর সত্যতা প্রমাণের জন্য সবাই দিল্লী বিধানসবার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যাচ্ছেন।

এছাড়াও দিল্লী বিজেপির সভাপতি তথা সাংসদ মনোজ তিওয়ারি দিল্লীতে ২০০ ইউনিট বিদ্যুতের বিল মাফ করার এই সিদ্ধান্তকে নির্বাচনী ললিপপ বলে আখ্যা দিয়েছে। উনি কেজরীবাল সরকারকে আক্রমণ করে বলেন, যখনই নির্বাচন আসে, তখনই অরবিন্দ কেজরীবাল কিছু না কিছু বিনামূল্যে পরিষেবা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। উনি দিল্লী সচিবালয় থেকে প্রাপ্ত একটি অর্ডার দেখিয়ে বলেন, ৩১ মার্চ ২০২০ এরপর দিল্লীবাসীকে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়ার কথা কথাও উল্লেখ নেই।