Press "Enter" to skip to content

অটল বিহারী বাজপেয়ীর সাথে কংগ্রেস যা করেছিল তার ইতিহাস জানলে আপনিও রেগে লাল হবেন।

সত্তরের দশকের সময় তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী সেই সময় দেশে জরুরি অবস্থা জারি করেছিল। জরুরি অবস্থা জারি করার ফলে দেশের সাধারন মানুষের মৌলিক অধিকার হরন হয়েছিল। তাই দেশের সকল রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব সেই দিনের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তীব্র প্রতিবাদ করেন। তাই সেই সব প্রতিবাদ মুখর রাজনৈতিক নেতাদের দমিয়ে রাখার জন্য তাদের কে দফায় দফায় জেলে ঢুকিয়ে দেয় ইন্দিরা গান্ধী সরকার। গ্রেফতার করা হয়েছিল মোরারজি দেশাই, চরণ সিং, জয়প্রকাশনারায়ণ সহ লালকৃষ্ণ আডবানিদের মতো নেতারা। এমনকি এই তালিকায় ছিলেন অটলবিহারি বাজপেয়ীও।

১৯৪২ সালে অটলবিহারি বাজপেয়ী ভারত ছাড়ো আন্দোলনের সাথে সরাসরি যুক্ত ছিলেন। সেজন্য সেই সময় তাকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছিল। তাই জেল খাটা তার পরিচিত। কিন্তু জরুরি অবস্থার সময় তাকে যখন জেলে ঢুকানো হয়েছিল তখন তার বয়স অনেক বেড়ে গিয়েছিল। আগের মত শক্ত শরীর ছিল না। তাই তাকে জেলে ঢোকানোর কিছু দিনের মধ্যেই বাজপেয়ীজির পিঠে অসহ্য যন্ত্রণা শুরু হয়ে যায়। তার ফলে তাকে সেই সময় নিজ বাসভবনে গৃহবন্দী করে রাখা হয়। কিন্তু দিন দিন তার শরীরের অবস্থা খুব খারাপ হতে শুরু করে ফলে তাকে এইমসে কাটাতে হয়েছিল বেশিরভাগ সময়।

তিনি কংগ্রেসের বিরুদ্ধে মাঠে নামেন ১৯৭৭ সালে। এবং নুতন দল ‘জনতা পার্টি’ গঠন করে তিনি সেই সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এবং কংগ্রেস কে পরাজিত করে তার তৈরি করা জোট সরকার। বাজপেয়ীজি সেই সময় কংগ্রেসকে পরাজিত করা জোট সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছিলেন। সেই জোট সরকারের পতনের পরে দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সঙ্গী এল কে আদভানি কে সাথে নিয়ে তিনি গঠন করেন ভারতীয় জনতা পার্টি- বিজেপি ১৯৮০ সালে। তারপর তাকে ভারত রত্নে ভূষিত করা হয় ২০১৫ সালে।

আপনাদের জানিয়ে দি আজকের যে বিজেপি সরকার পুরো ভারতে নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি করেই চলেছে এবং প্রায় সব রাজ্য নিজেরদের শাসনে নিয়ে এসেছে এর মূল ভীত তৈরি করে গেছেন অটল বিহারী বাজপেয়ীজি। রাজধর্ম পালনের মধ্যে দিয়ে কিভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় তা শিখিয়ে গিয়েছেন

#অগ্নিপুত্র