Press "Enter" to skip to content

বড় খবরঃ অযোধ্যা রাম মন্দির মামলায় পুনর্বিচার আবেদন দাখিল করবেনা সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড

লখনউঃ অযোধ্যা মামলায় শনিবার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত শোনানো হয়। পাঁচ বিচারকের সাংবিধানিক বেঞ্চ বিবাদিত জমি রামলালার হাতে তুলে দেয়। শীর্ষ আদালত কেন্দ্র আর উত্তর প্রদেশ সরকারকে রাম মন্দির বানানোর জন্য তিন মাসের মধ্যে ট্রাস্ট বানানোর নির্দেশ দিয়েছে। আদালত জানিয়েছে, ০২.৭৭ একর জমি কেন্দ্রি সরকারের অধীনে থাকবে। এর সাথে সাথে মুসলিম পক্ষকে মসজিদ বানানোর জন্য আলাদা করে পাঁচ একর জমি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের পক্ষ হইতে। এছাড়াও আদালত নির্মাহি আখারা এবং শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের দাবি খারিজ করে দিয়েছে। যদিও নির্মাহি আখারাকে ট্রাস্টে জায়গা দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত ঘোষণা হওয়ার পর, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তথা মুসলিম পক্ষের আইনজীবী Zafaryab Jilani জানিয়েছেন তাঁরা এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারছেন না। ভবিষ্যতে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত নিয়ে তাঁরা আবার আদালতের দরজায় কড়া নাড়তে পারে। আরেকদিকে, AIMIM চীফ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi) জানান, তিনি অযোধ্যার সিদ্ধান্ত নিয়ে সহমত না। সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের পর হায়দ্রাবাদের সাংসদ ওয়াইসি বলেন, মুসলিম পক্ষ নিজের অধিকারের জন্য আইনি লড়াই লড়ছিল। উনি বলেন, মুসলিম পক্ষ নিজেদের জন্য নিজেদের পয়সা দিয়ে মসজিদ বানাতে পারে। উনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট সর্বোচ্চ, কিন্তু অব্যর্থ নয়।

AIMIM আসাদউদ্দিন ওয়াইসি অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণার পর বলেন, আমি আইনজীবীদের ধন্যবাদ জানাই। আমি মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের এই কথায় সহমত যে, সুপ্রিম কোর্ট সুপ্রিম, কিন্তু তাঁরা অব্যর্থ না। মুসলিম সমাজ নিজেদের সাংবিধানিক অধিকারের জন্য লড়াই করেছে। আমাদের কোন ভিক্ষার দরকার নেই। আমি নিজের দিক থেকে বলছি যে, পাঁচ একর জমির অফার ফেরত দিয়ে দেওয়া উচিত। উনি আরও বলেন, ফ্যাক্টস এর উপর আস্থার জয় হয়েছে। আর এখন সবথেকে বড় আশঙ্কা যে, সঙ্ঘ এবার কাশী আর মথুরার কথাও তুলবে।

এরপর যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিলো উত্তর প্রদেশের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান জফর ফাহ্রুকি। উত্তর প্রদেশের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান জফর ফাহ্রুকি বলেন, আমরা সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই আর স্বীকার করি। আমি এটা পরিস্কার জানিয়ে দিচ্ছি যে, উত্তর প্রদেশ সুন্নি অয়াকফ বোর্ড সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন দাখিল করবেনা।

আরেকদিকে, দিল্লীর জামা মসজিদের শাহি ইমাম সৈয়দ আহমেদ বুখারি বলেন, আমি এর আগেও বলেছিলাম যে, সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সন্মান দেওয়া হবে। আমি আশা করছি যে, দেশ এবার উন্নতির রাস্তায় এগিয়ে যাবে। আমি পুনর্বিচার আবেদনের পক্ষে সহমত না।

you're currently offline