Press "Enter" to skip to content

“জেনারেল বর্গকে দেওয়া ১০% সংরক্ষনের মধ্যে ৫% সংরক্ষণ মুসলিমদের দিতে হবে”: আজম খান, সমাজবাদী নেতা।

গতকাল ঐতিহাসিকভাবে লোকসভায় দুটো বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে কেন্দ্রের মোদী সরকার। প্রথম বিল পাশ হয় নাগরিকত্ব সংশোধন বিল যার মাধ্যমে পাকিস্থান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান থেকে আগত অমুসলিমরা সহজেই ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবে। অর্থাৎ এই বিলের মাধ্যমে কট্টরপন্থী দ্বারা বিতাড়িত হিন্দু সমাজকে সুরক্ষা প্রদান করা হবে। শুধু এই নয়, এই আইন ভারত থেকে অবৈধ মুসলিম অনুপ্রবেশকারীদের বের করতে সাহায্য করবে। অন্যদিকে লোকসভায় রাত ১০ তেই জেনারেল সমাজকে সংরক্ষণ দেওয়ার উপর বিল পাশ হয়। এই বিল আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া সাধারণ বর্গকে ১০ শতাংশ সংরক্ষণ প্রদান করা হবে। আগে শুধুমাত্র SC,ST ও OBC বর্গের লোকজন সংরক্ষণ পেত যার কারণে হিন্দু সমাজের বৈষম্যের কারণে একটা বড় ফাটল তৈরি হয়েছিল।

এই বৈষম্যকে দূর করার জন্য এই পদক্ষেপ অনিবার্য ছিল বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তবে এই পদক্ষেপের ফলে হিন্দু জাতির মধ্যে বিভেদ কমলেও ভারতের বড় বড় কিছু নেতাদের রাজনৈতিক জীবন বিপদের মুখে পড়ে গিয়েছে। কারণ ভারতের বেশিরভাগ রাজনৈতিক পার্টি বিশেষ করে কংগ্রেস প্রত্যেক রাজ্যে ” ভাগ করো ও রাজ করো” এই নীতির উপর রাজত্ব করতো। অর্থাৎ হিন্দু সমাজকে নানা ভাগে বিভক্ত করে ভোট ব্যাঙ্ক তৈরি করতো অন্যদিকে মুসলিম সমাজকে তোষণ করে নির্বাচনের রণকৈশল তৈরি করতো।

মোদীর মাস্টারস্ট্রোকে এখন সেই সমস্থ পরিকল্পনা ভেস্তে যেতে শুরু করেছে। তাই এখন মোদী সরকারের এই বিলের বিরুদ্ধে কিছু নেতা বিলবিলাতে শুরু করেছে। সমাজবাদী পার্টির বড় ও কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ নেতা আজম খান এই বিল নিয়ে প্ৰধানমন্ত্রী মোদীর উপর বড় আক্রমণ করেছেন। নরেন্দ্র মোদী সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছেন বলে অভিযোগ করেছেন আজম খান। জেনারেল বর্গকে সংরক্ষন দেওয়া অনুচিত বলে মনে করেন আজম খান।

আজম খান বলেছেন দেশের মুসলিমরা দলিতদের থেকেও খারাপ অবস্থায় রয়েছে। যদি এই আইন লাগু করতেই হয় তাহলে ১০% সংরক্ষণের মধ্যে ৫% সংরক্ষন মুসলিম সমাজকে দিতে হবে। আজম খান বলেন জেনারেল বর্গের যাদেরকে সংরক্ষন দেওয়া হবে তারা আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকলেও সামাজিক দিক থেকে পিছিয়ে নেই তাই এই সংরক্ষণের অর্ধেক অংশ তথা ৫% ভারতের দ্বিতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠ জাতিকে(মুসলিম জাতি) দেওয়া হোক। জানিয়ে দি, মুসলিম সমাজ আগে থাকতেই একটা বড় সংরক্ষন পায় এরপরেও সাধারণ বর্গকে দেওয়া সংরক্ষণ এর অর্ধেক মুসলিম সমাজকে দেওয়ার দাবি তুলেছেন আজম খান।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.