Press "Enter" to skip to content

বায়ুসেনার স্ট্রাইকের উপর যারা প্রশ্ন তুলেছিল, তাদের DNA নিয়ে কটাক্ষ করে দিলেন যোগগুরু রামদেব বাবা! বললেন এমন কথা…

দেশের সরকার জানিয়েছিল- ভারতের বায়ুসেনা পাকিস্থানের উপর এয়ার স্ট্রাইক করেছে। বালাকোটের এলাকা সার্ভিল্যান্সে থাকায় জানা গেছিল যে আতঙ্কবাদী ক্যাম্পে ৩০০ টি মোবাইল এক্টিভ ছিল।
দেশের বায়ুসেনা জানিয়েছিল- আমারা আমাদের মিশনকে সম্পুর্ন করেছি, আমাদের কাজ ছিল টার্গেট হিট করা, সেটা আমরা সঠিকভাবে করতে সক্ষম হয়েছি।

দুটি কথা মিলিয়ে ভারত পাকিস্থানের উপর যে এয়ার স্ট্রাইক করেছিল তাতে পাকিস্থানের ৩০০ জন আতঙ্কবাদী শেষ হয়ে গেছে। এটা পাকিস্থানের সরকার অস্বীকার করেছে যদিও জইস-ই-মহম্মদের আতঙ্কবাদীরা ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছে। পাকিস্থানের সরকার ও পাকিস্থানের মিডিয়া দাবি করেছে যে ভারত ফাঁকা জায়গায় বোমা ফেলেছে, যাতে শুধু গাছ নষ্ট হয়েছে কেউ মরেনি।

এখন পাকিস্থানের সরকার ভারতের দাবি স্বীকার করবে না এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু পাকিস্থানের সাথে সুরু মিলিয়ে কথা বলছে ভারতে থাকা কিছু দেশদ্রোহী। অনেক রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক নিজেরদের এজেন্ডা চালানোর জন্য দেশ বিরোধী কাজ শুরু করে দিয়েছে এবং পাকিস্থানের সুরে সুর মিলিয়েছে।

দেশের ভেতরে থাকা এই দেশদ্রোহীদের জন্য যোগ গুরু রামদেব বাবা বড় কটাক্ষ করেছেন। রামদেব বাবা যাদের কটাক্ষ করেছেন তাদের নাম নেননি কিন্তু যা বলেছেন তাতেই স্পষ্ট যে উনি কাদের নিশানা করেছেন। যোগগুরু রামদেব বাবা বলেছেন, দেশদ্রোহীরা বর্নশঙ্কর এবং এরা অসুর প্রজাতির। রামদেব বাবা বলেছেন এদের জন্ম সন্দেহের পরিস্থিতিতে হয়েছে। এই কারণে সন্দেহ করা এদের DNA তে রয়েছে। জানিয়ে দি, রামদেব বাবা এখানে বায়ুসেনার দ্বারা করা এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তোলা ব্যাক্তিদের নিশানা করেই এই কটাক্ষ করেছেন। আসলে দেশে এমন লোকের অভাব নেই যারা ভারত দেশের খেয়ে ভারত দেশের নাম খারাপ করার জন্য কাজ করে। এরা দেশের সেনার থেকে পাকিস্থানের মিডিয়া ও পাকিস্তানের সরকারকে বেশি বিশ্বস করে এবং পুরো ভারতে সেনা বিরোধী সন্দেহের পরিবেশ সৃষ্টি করার চেষ্টা করে।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.