Press "Enter" to skip to content

এখনও যাদবপুরে আটকে রয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়, আহত উপাচার্যও! বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছাতে পারেন রাজ্যপাল।

যাদবপুর থেকে একটা বড়ো খবর সামনে আসছে। যেখানে আসানসোলের সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে বামপন্থী ছাত্ররা উৎপাত করেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পৌঁছে ছিলেন। কিন্তু উনাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বামপন্থী চিন্তাধারার ছাত্ররা। এবিভিপির নবীন বরণ অনুষ্ঠানে একজন সংগীত শিল্পী হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বাবুল সুপ্রিয়।  অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে আসা বাবুল সুপ্রিয়কে প্রথমে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। উনাট চুল ধরে টানা হয়, জামা ধরে টেনে হেনস্থা করা হয়।

উপাচার্য সুরঞ্জন দাসের সাথেও বাবুল সুপ্রিয়র কথা হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। উপাচার্য ঘটনার নিন্দা করেন দুঃখ প্রকাশ করেন কিন্তু বাবুল সুপ্রিয়কে বামপন্থীদের হাত থেকে বের করে আনতে কোনো পদক্ষেপ নিতে পারেনি। উপাচার্যও বাম সমর্থকদের হাতে আক্রান্ত হয়ে আহত হয়েছে বলে সূত্রের খবর। বামপন্থী ছাত্রদের উৎপাতে পরিস্থিতি এমন হয় যে বাবুল সুপ্রিয় মাটিতে পড়ে যান। চড়, ঘুষি,কিল মেরে চশমা খুলে দেওয়া হয় বাবুল সুপ্রিয়র। পরিস্থিতি প্রচন্ড উত্তপ্ত রয়েছে, যার জন্য রাজ্যপাল চিন্তা ব্যাক্ত করেছেন। রাজ্যপাল যে কোনো মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয় পৌঁছাতে পারেন।

বাবুল সুপ্রিয়র গায়ে রীতিমতো হাত তোলে SFI সংগঠনের দলবল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর গায়ে এভাবে হাত দেওয়া রীতিমতো অন্যায় কাজ। আর সেই কাজ করেই এখন বর্বরতার পরিচয় দিয়েছেন বামপন্থী ছাত্ররা। বিশ্ববিদ্যালয়ে ABVP এর ইউনিট তৈরি হয়েছিল গত ফেব্রুয়ারি মাসে, সেই ইউনিটের নবীনিকরণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের তালিকায় ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়, বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল ও গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অচিন্ত্য বিশ্বাস। বাবুল সুপ্রিয় সেখানে একজন সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে গেছিলেন। কিন্তু বাবুল সুপ্রিয়র মান রাখার পরিবর্তে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের কালো পতাকা দেখায় বাম মানসিকতা ছাত্ররা। একইসাথে গো ব্যাক শ্লোগানও দেওয়া হয়।

you're currently offline