Press "Enter" to skip to content

সরকারের ঐতিহাসিক সিধান্ত: এবার সীমান্তের কাঁটা তারের মধ্যে দৌড়াবে ১১ হাজার ভোল্টের কারেন্ট।

পাকিস্থানি সীমাকে অভেদ্য করার জন্য পক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশের জনগণকে কড়া সুরক্ষা দেওয়ার উপর কাজ শুরু করেছিল। কংগ্রেস আমলে দেশের বড় বড় শহরে যে আতঙ্কবাদী হামলা হতো সেগুলি মোদী আমলে সম্পূর্নরূপে বন্ধ হয়ে গেছে ঠিকই কিন্তু এখনো সীমা পার করে ভারতে প্রবেশ করার জন্য ইসলামিক জঙ্গিরা লাগাতার প্রয়াস করছে। তাই এবার ভারত সীমান্তে থাকা তারের বেড়াকে পুরোপুরি শীল করার উপর বিচার করছে। ভারত সরকার সীমান্তে থাকা কাঁটা তারের বেড়ার উপর বিদুৎ পাশ করানোর সিধান্ত নিয়েছে। প্রথম ধাপে সীমান্তের মাত্র কয়েকটি বিশেষ এলাকায় কোবরা ওয়ার প্রজেক্ট শুরু হবে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী ১৫ টি সীমাচকী এলাকায় কোবরা ওয়ার বিছিয়ে দেওয়া হবে। এই তারের মধ্যে দৌড়াবে ১১ হাজার ভোল্টের বিদুৎ। যার ফলে পাকিস্থানিরা তারকে স্পর্শ করা মাত্র জান্নাত এর রাস্তা দেখতে পাবে। এখন বিশেষকিছু চিহ্নিত এলাকায় এই প্রজেক্টের কাজ চালানোর পর যদি সফলতা আসে তবে রাজস্থানের সাথে ঘেঁষা ১০৪০ কিমি আন্তরাষ্ট্রীয় সীমান্তে কোবরা ওয়ার লাগানো হবে।

আসলে কোবরা প্রজাতির সাপ জঙ্গলে পাওয়া যায় যার একটা দংশনেই মানুষ শেষ। এই সাপের মতোই ঘাতক হবে কোবরা তার। এড মধ্যে দিয়ে সবসময় ১১ হাজার ভোল্টের কারেন্ট পাশ হবে। এই তর্কও ছুঁয়ে দেওয়া মাত্র ব্যাক্তির মৃত্যু ঘটতে পারে। শুধু এই নয়, যদি কেউ যন্ত্রাদি দিয়ে তার কাটতে চেষ্টা করে তাহলে এলার্ম বেজে উঠবে।

যারফলে কাছাকাছি উপস্থিত BSF জওয়ানরা সক্রিয় হয়ে উঠতে পারবে। কোবরা ওয়ার সফলতা দিতে পারলে পাকিস্থান ভারত সীমান্তের সাথে সাথে বাংলাদেশ সীমান্তেও লাগানো হতে পারে। এর কারণ বাংলাদেশ থেকে প্রায় সময় কাঁটা তার পেরিয়ে অবৈধ অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা দেখা যায়। ইসলামের নাম আলাদা দেশভাগের পরেও বাংলাদেশি মুসলিমরা ভারতে প্রবেশ করার চেষ্টা করে যার উপর লাগাম লাগাতে চাই ভারত সরকার।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.