Press "Enter" to skip to content

মহাবিপদে মমতার সরকার! ২৫০০০ কোটি টাকার কাটমানি খাওয়ার রিপোর্ট যাচ্ছে অমিত শাহের হাতে।

চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আনলেন ঘাটাল লোকসভা থেকে বিজেপির প্রার্থী ভারতী ঘোষ। একদা মমতা ব্যানার্জীর স্নেহভাজন ছিলেন তিনি। আইপিএস অফিসার হওয়া স্বত্বেও তৃণমূল দলের হয়ে কাজ করতেন ভারতী ঘোষ। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে মা বলেও ডাকতেন তিনি। কিন্তু হঠাৎই স্নেহভাজন থেকে চক্ষুশূল হয়ে ওঠেন ভারতী ঘোষ। এরপর মমতা ব্যানার্জীর নির্দেশে নানারকম ভাবে অত্যাচার চালানো হয় ভারতী ঘোষের উপর। বাড়ি তল্লাশি থেকে শুরু করে হুমকি পর্যন্ত সবই সহ্য করতে হয় ওনাকে। অবশেষে ভারতী ঘোষ গিয়ে যোগ দেন বিজেপিতে। বিজেপির তরফ থেকে ভারতী ঘোষকে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীও করা হয়। কিন্তু তৃণমূলের তারকা প্রার্থী দীপক অধিকারী (দেব) এর কাছে পরাজিত হন তিনি।

লোকসভা ভোটে হেরেও আশা ছাড়েননি তিনি। এবার তিনি তৃণমূল এবং মমতা ব্যানার্জীকে রাজ্য থেকে উৎখাত করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন। আর সেই ক্রমেই তিনি এবার দুর্গাপুরে বিজেপির চিন্তন শিবিরে যোগ দিয়েছেন। সেই শিবিরেই এই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আনেন তিনি। ভারতী ঘোষ জানান, ণমূলের আমলে আট বছরে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার কাটমানি নেওয়া হয়েছে।

ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিকাল ইনস্টিটিউটের (ISI) এক অধ্যাপক একটি রিপোর্ট তৈরি করেছেন। আর সেই রিপোর্ট বিজেপির নেতাদের সামনে তুলে ধরেন ভারতী ঘোষ। এমনকি এই রিপোর্টটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ এর হাতে তুলে দেওয়ার জন্য তোড়জোড় শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, কাটমানি ইশুতে রীতিমতো জর্জরিত শাসকদল৷ এই পরিস্থিতিতে রিপোর্টটি সত্য প্রমাণিত হলে পুরোপুরি বেকায়দায় পড়ে যাবে তৃণমূল৷

লোকসভা ভোটের পর থেকে তৃণমূলের দুর্নীতি নিয়ে সরব বিজেপি। বিজেপির উত্থান দেখে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জী তৃণমূল নেতাদের কাটমানি ফেরত দেওয়ার কথা জানান। কিন্তু মমতা ব্যানার্জীর এই রাজনৈতিক চাল বুমেরাং হয়ে ওনার কাছেই ফেরত আসে। রাজ্যের প্রতিটি জেলা থেকেই কাটমানি নিয়ে তৃণমূল নেতাদের দুর্নীতি সামনে আসতে শুরু করে। আর এরপর থেকে বিজেপি তৃণমূলের এই দুর্নীতি নিয়ে আরও বেশি করে সরব হয়। আর এখন ভারতী ঘোষ এর এই নতুন রিপোর্ট আরও অস্বস্তিতে ফেলতে চলেছে শাসক দলকে।

you're currently offline