Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকারের কামাল, এবার পাকিস্তানের সঙ্গ ত্যাগ করে ভারতের পাশে দাঁড়াল চীন

পুলওয়ামায় পাকিস্তানের তরফ থেকে করা হামলার পর মঙ্গলবার ভারত এয়ার স্ট্রাইক করে পাকিস্তানে জৈশ এ মহম্মদ এর আস্তানা গুঁড়িয়ে দেয়। এই অভিযানে মিরাজ ২০০০ বিমান ব্যাবহার করা হয়েছিল। ভারতীয় বায়ুসেনা ১২ টি মিরাজ ২০০০ নিয়ে পাকিস্তানের বালাকোটে জৈশ এ মহম্মদ এর আস্তানায় ১০০০ কেজির বোম ফেলে আসে।

ভারতীয় সেনার এই অভিযানে জৈশ এর ৩ টে কন্ট্রোল রুপ পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়। আর এরই মধ্যে চীন সফরে যাওয়া ভারতের বিদেশ মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে এক হাতে নেন। সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানের সবথেকে বড় বন্ধু চীনের সামনে পুলওয়ামা ইস্যু তোলেন। আর বালাকোটে ভারতের করা পালটা হানার কথাও তোলেন তিনি।

ভারত, রাশিয়া আর চীনের এই বৈঠকের পরে চীন ও পাকিস্তানের উপর দোষ চাপিয়ে ভারতের পাশে থাকার কথা বলে। চীন থেকে বলা হয়, ‘আমরা সন্ত্রাসবাদকে নির্মূল করার জন্য সবরকম সাহাজ্য করব”। একই সময়ে কূটনীতিকরাও বলছিলেন যে পুলওয়ামার আক্রমণের পর চীন আর পাকিস্তানকে সাহায্য করবে না।

আর চীন এও বলতে পারে যে, শুধুমাত্র অর্থনৈতিক দিক থেকেই পাকিস্তানকে লিমিটেড সাহাজ্য করবে তাঁরা। চীনের পাকিস্তানের মাথার উপর থেকে হাত তুলে নেওয়া এবং ভারতকে সমর্থন করা নিয়েও এক স্বার্থ আছে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, এপ্রিল মাসে দ্বিতীয় বেল্ট ও রোড ফোরামে ভারত সহযোগিতার ব্যাপারে চীন আগ্রহী। গত বছর ভারত প্রথম বেল্ট এন্ড রোড ফোরাম বৈঠকের বহিস্কার করেছিল। এই প্রজেক্টের একটা অংশ পাক অধিকৃত কাশ্মীরের উপরে দেইয়ে যায়, আর এই কারণেই ২০১৮ সালে ভারত এই বৈঠকের বহিস্কার করেছিল।

 

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.