Press "Enter" to skip to content

Big breaking: চীনকে বহু পেছনে ফেলে ভারতের GDP গ্রোথ রেট ৮ শতাংশ পার করলো। ভারতের বর্তমান GDP রেট..

বিরোধীদের মুখে আরো একবার ঝামা ঘষে দিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী ের নীতি ও সুপরিকল্পনার ফলাফল আসতে শুরু করেছে। আপনাদের জানিয়ে দি, ের গ্রোথ রেট ৮ শতাংশ টপকে দিয়েছে। আপনাদের জানিয়ে দি বর্তমান সময়ে বিশ্বের সমস্থ দেশের আর্থিক মন্দার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ইউরোপের দেশগুলির কোমর ভেঙে পড়েছে, আমেরিকা ও চীনের বড়ো বড়ো সংস্থা পর্যন্ত বহু বিলিয়ন ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। চীনের রেট লাগাতার নীচে যেতে শুরু করেছে। এমন পরিস্থিতিতে হিন্দুস্থানের লাগাতার উপরে উঠতে শুরু করেছে। আজকের প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী ভারত ৮ শতাংশ জিডিপিকে পার করেছে। বর্তমানে রেট ৮.২ % হয়েছে। এখন জিডিপিতে ভারতকে টক্কর দেওয়ার মতো কোনো দেশ নেই।

আগেই ভারত চীনকে পেছনে ফেলে দিয়েছিল ভারত ৭.৩ শতাংশ জিডিপি ছিল তো চীন ৬.৭ শতাংশ জিডিপি গ্রোথ নিয়ে এগোচ্ছিল। এখন ভারত ৮.২ শতাংশ জিডিপি নিয়ে দুরন্ত গতি ধরে ফেলেছে অন্যদিকে চীন ৬.৭ % জিডিপিতেই আটকে রয়েছে। এখন ভারত ও চীনের মধ্যে অনেক পার্থক্য সৃষ্টি হয়ে গেছে। এটিকে ভারতের জন্য একটা বড়ো উপলদ্ধি কারণ এখন ভারতের একোনোমিকে বিশ্বে আলাদা চোখে দেখা হবে। ৮.২ শতাং জিডিপি কোনো ছোট ব্যাপার নয়।

জিডিপি গ্রোথ রেট বিষয়টি এমন ব্যাপার যেন সামনে কোনো হীরা পরিহিত ব্যাক্তি যা অন্য ব্যাক্তির দৃষ্টি আকর্ষণ করে। ভারতের এই ব্যাপক জিডিপি এটা নিশ্চিত করেছে যে এবার সারা বিশ্বের বিশাল পরিমান নিবেশকরা ভারতের দিকে আকর্ষিত হবেন। জানিয়ে দি, ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্ক ও IMF প্রথম থেকেই ভারতের বর্তমান নীতিকে নমস্কার জানিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে খুব তাড়াতাড়ি ভারতের জিডিপি ৮.৫ শতাংশ পার করবে। তবে মোদী আমলে বিশেষজ্ঞদের উপর ভরসা করা মুশকিল হয়ে পড়েছে কারণ বর্তমান বিশেষজ্ঞরা বর্তমান জিডিপি গ্রোথ রেটে পৌঁছানোর জন্য ২০২০ এর কথা বলেছিল কিন্তু এই বছরেই এই মাত্রা ভারত ছুঁয়ে ফেললো।

নারেন্দ্র মোদী সরকারের নীতি ভারতের দুর্নীতির উপর দারুণভাবে লাগাম লাগিয়েছে তাই ভারত দ্রুতগতিতে জিডিপি গ্রোথ করছে বলে দাবি বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির। আপনাদের স্মরণ করিয়ে দি, অটল বিহারী বাজপেয়ীজি মনমোহন সিং কে ৮.৪ শতাংশ জিডিপি গ্রোথ রেট করে দিয়েছিলেন। যা মনমোহন সিং ৫.৪ শতাংশে পরিণত করেছিলেন। এখন ।মনমোহন সিং মোদীকে ৫.৪ শতাংশ করে দিয়েছিলেন যা মোদী বর্তমানে ৮ ২ শতাংশ পৌঁছে দিয়েছেন। এখন পুরো বিশ্বের সবথেকে বিকশিত দেশ ভারত না হলেও বিকাশের হার ভারতে সবথেকে বেশি। অর্থাৎ এইভাবে চলতে থাকলে ভারত আরো একবার বিশ্বের শ্রেষ্ঠ আসন নিয়ে বিশ্ব গুরুর পদমর্যাদা পাবে।