খোলাখুলি তোষণের রাজনীতি! উচ্চশিক্ষার থেকে মাদ্রাসার জন্য বেশি টাকা বরাদ্দ করলো পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

ইংরেজদের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করে ভারতে নবজাগরণের সূত্রপাত ঘটিয়ে ছিল বাংলা। কিন্তু রাষ্ট্রবাদের উৎপত্তিস্থল সেই বাংলা এখন রাজনীতি দ্বারা প্রভাবিত হয়ে নিজের পরিচয় হারিয়ে ফেলেছে। আজ পশ্চিমবঙ্গের রাজনীত এমন স্থানে পৌঁছে গেছে আধুনিক শিক্ষাও মুসলিম তোষণের সামনে মাথা নামিয়ে দিয়েছে।সূত্রের খবর, ২০১৯-২০ বাজেটে পশ্চিমবঙ্গ সরকার সংখ্যালঘু ও মাদ্রাসা বিকাশের জন্য উচ্চশিক্ষার থেকে বেশি টাকা বরাদ্দ করেছে।

বাজেটের নথি অনুযায়ী,রাজ্যে মাদ্রাসার বিকাশের জন্য ৪০০০ কোটি টাকার বেশি রাশি অবন্ঠিত করা হয়েছে অন্যদিকে পুরো পশ্চিমবঙ্গের উচ্চশিক্ষার জন্য ৩৯৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। রাজ্য সরকারের এমন মুসলিম তোষণের বিরুদ্ধে বিজেপি আওয়াজ তুললেও বাংলার মিডিয়া সম্পুর্ন নিশ্চুপ রয়েছে।

 

বিজেপি নেতারা বলেছেন, এই তোষণের রাজনীতি বামপন্থীরা শুরু করেছিল কিন্তু মমতা ব্যানার্জী এতে এমন গতি দিয়েছেন যে রাজ্যের সমস্তকিছু ধ্বংসের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন। নিজের মুসলিম ভোটব্যাঙ্ক তৈরি করতে গিয়ে রাজ্যকে ইসলামিক আগ্রাসনের দিকে মমতা ব্যানার্জী ঠেলে দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

মমতা ব্যানার্জী মাদ্রাসার জন্য কি হারে রাজ্যের অর্থ খরচ করছে সেটা এটা থেকেই বোঝা যায়, যে মাদ্রসার জন্য ৪০১৬ কোটি টাকা এবং পুরো রাজ্যের PWD এর জন্য ৫৩৩৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। জানিয়ে দি, পশ্চিমবঙ্গ কোনো মুসলিম বহুল রাজ্য নয় কিন্তু তা সত্ত্বেও মমতা ব্যানার্জীর সরকার মুসলিম ভোটব্যাঙ্ক এর জন্য মাদ্রাসার পেছনে মানুষের ট্যাক্সের ট্যাক্স ঢেলে দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিগত বছরের বাজেটে সংখ্যালঘুদের জন্য ৩২৫৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল যা ২৩% বৃদ্ধি করা হয়েছে।

তথ্য সূত্র: My nation 

Leave a Reply

you're currently offline

Open

Close