Press "Enter" to skip to content

“চারিদিকে হিন্দুত্ব ছড়িয়ে পড়ছে, সময় এসেছে হিন্দুদের আটকে দেওয়ার”: বিন্দ্রা করাত, বামপন্থী নেত্রী।

মোদী আমলে হিন্দুদের শক্তি যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং হিন্দু একতা যেভাবে জোট বাঁধছে তাতে রীতিমত চিন্তায় পড়েছে বামপন্থী গ্যাং। সিপিএম নেতা প্রকাশ করাত এর পত্নী বিন্দ্রা করাত হিন্দু ও হিন্দুত্ব নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য কোটে দিয়েছেন। বিন্দ্রা বলেছেন হিন্দুত্ব চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে, হিন্দুদের আটকাতে হবে। বিন্দ্রা করাত এর এক ভিডিও দেখব সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে বিন্দ্রা করাত হিন্দুত্ব নিয়ে ভাষণ দিচ্ছেন। বিন্দ্রা বলেছেন যে এবার সময় এসে গেছে হিন্দুত্বকে আটকে দেওয়ার। যেনতেন প্রকারে হিন্দুত্ব আটকানোর কথা বলেছেন বিন্দ্রা করাত। উনি আরো বলেন, আমরা হিন্দুদের আটকাতে পারি এবং একজুট হয়ে আটকাবো।

বিন্দ্রা করাত তার ভাষণে হিন্দুত্ব শব্দের বেশি প্রয়োগ করেছেন যার মূল অর্থ হিন্দুদের রাজনৈতিক শক্তিকে বোঝায়। আসলে ভারতের হিন্দুরা এখন মোদীর নেতৃত্বে এক হয়ে নিজের অধিকারের জন্য লড়াই শুরু করেছে। যার জন্য বামপন্থী, কট্টরপন্থীরা অনিয়ন্ত্রিত হয়ে বিলবিল করতে শুরু করেছে।

লক্ষণীয় বিষয় এই যে বামপন্থী নেতারা হিন্দুদের বিরুদ্ধে দিনরাত এক করে ক্ষোভ উগরালেও কখনোই আতঙ্কবাদ, রোহিঙ্গা, অবৈধ বাংলাদেশী নকসালবাদ বা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কথা বলে না। আসলে এই সমস্থ বামপন্থী বুদ্ধিজীবীরা শুধুমাত্র হিন্দুদের সভ্যতার তীব্র বিরোধী। ২০১৪ সালে মোদীর নেতৃত্বে হিন্দুরা এক হতে শুরু করেছে যার জন্য বুদ্ধিজীবীদের বিদেশি ফান্ডিং পর্যন্ত বন্ধ হয়েছে।

10 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.