Press "Enter" to skip to content

BJP-র বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সবাইকে সঙ্গে নিতে হবে, তৃণমূলকেও! স্পষ্ট জানালেন সূর্যকান্ত মিশ্র


কলকাতাঃ বাংলায় শূন্য হওয়ার পর বিপর্যয় নিয়ে আত্ম সমালোচনায় নেমেছে সিপিএম (CPIM)। আর সে আত্ম সমালোচনায় বারবার উঠে আসছে নতুন নতুন তত্ত্ব। েরা কখনও বলছে শুধু বিজেপিকে (Bharatiya Janata party) দোষ দিয়ে তৃণমূলকে (All Trinamool ) ছোট করে দেখা ভুল হয়েছিল। আবার কখনও বলছে ভোটের আগে তৃণমূল-বিজেপিকে এক করে বিজেমূল আখ্যা দেওয়া ভুল ছিল। বামেদের আন্তরিক পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, আর তৃণমূল এক না। তবে একুশের নির্বাচনের আগে যেই বামেরা সঙ্গে বিজেপিকে মিশিয়ে দিতে চেয়েছিল, এখন তাঁরাই আবার তৃণমূলের সঙ্গে মিশে যেতে চাইছে।

হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন, চির শত্রু তৃণমূলের হাত ধরে বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াই করার পরিকল্পনা নিয়েছে বামেরা। আর সেটা বামেদের শীর্ষ নেতৃত্বদের একের পর এক বয়ানে স্পষ্ট হয়ে উঠছে। একুশের নির্বাচনে আগে বামেরা যেমন আব্বাস সিদ্দিকীর আইএসএফ-এর সঙ্গে জোট করার জন্য তৎপর ছিল, এবার ভোট মিটতেই তৃণমূলে সঙ্গে জোট করার জন্য তৎপর হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এবার তৃণমূলকে সঙ্গে নিতে হবে। তবে তিনি এও জানান যে,পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে বামেরা। উল্লেখ্য, ২০২৪-র লোকসভার নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে দলগুলি। বিশেষ করে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূল কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে উৎখাত করতে তৎপর হয়েছে আর এরজন্য তাঁরা বিজেপি বিরোধীদের সঙ্গে একের পর এক বৈঠকও করে চলেছে।

একদিকে তৃণমূল যখন সমস্ত বিরোধীদের এক করার জন্য তৎপর হয়েছে, তখন অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গ সিপিএম জাতীয় স্তরে তৃণমূলে সঙ্গে জোট বাঁধার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। বৃহস্পতিবার সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করতে গেলে সবাইকে সঙ্গে নিতে হবে। সবাইয়ের মধ্যে তৃণমূলও পড়ে। তাই তৃণমূলকেও সঙ্গে নিতে হবে। গোটা দেশে বিরোধী একজোট হলে ভালো। রাজ্যের থেকে দিল্লীর ক্ষমতা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বিজেপিকে দিল্লী থেকে সরাতে পারলে আমাদের লড়াই আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। এরপর রাজ্যে রাজ্যে দেখা যাবে।

সূর্যকান্তর মতে জাতীয় স্তরে তৃণমূলকে সঙ্গে নিলেও রাজ্যে তাঁদের সঙ্গে কোনও সমঝোতা হবে না। তিনি জানান, আমরা রাজ্যে যেই নীতি নিয়ে লড়েছি, সেই নীতিতেই লড়ব। বাংলায় বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে সমস্ত শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে লড়াই করতে হবে। তিনি বলেন, যারা যারা বলছেন যে তৃণমূলকে দিয়ে বিজেপির মোকাবিলা করা যাবে না, তাঁরা ঘুরপথে বিজেপির সুবিধা করিয়ে দিচ্ছেন।

সূর্যকান্ত মিশ্রর এই বয়ানে এটা স্পষ্ট যে তৃণমূলের সঙ্গে জোট করার জন্য তাঁরা এক পা এগিয়ে রেখেছেন। তবে এটা দেখার বিষয় যে ত্রিপুরাতেও তৃণমূলের সঙ্গে জোট করে নাকি তাঁরা।