Press "Enter" to skip to content

২০১৯ এর আগেই বাড়তে চলছে বিজেপির ক্ষমতা।দেখুন কোন বিধায়ক যোগ দিলেন গেরুয়া শিবিরে।

এবার ভাঙন এ! ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন রাজ্যের প্রাপ্তন বিধায়ক। বিশ্বজিত্ দত্ত নামের এই বিধায়ক খোয়াইয়ে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেখানেই বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন। তার হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন ত্রিপুরার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সুনীল দেওধর। বিজেপিতে যোগ দিয়েই তিনি তার পুরোনো দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন যে, তারা দুর্নীতি ও অপরাধে মদত দিত। বিশ্বজিত দত্ত ১৯৬৪ সাল থেকে রাজ্য কমিটির সদস্য ছিলেন। দলের নানা উত্থানপতনে তিনি নিজের হাতে দল কে রক্ষা করেছেন। কিন্তু তিনি সম্প্রতি অভিযোগ তুলেন যে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে পার্টির তরফে। ১৮ ই ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে যেখানে তথা বামফ্রন্ট হেরে গিয়েছিল সেই নির্বাচনের প্রার্থী করা হয়েছিল তাকে।

কিন্তু তিনি অভিযোগ আনেন যে প্রথমে তাকে প্রার্থী করা হলেও পরে অসুস্থতাজনিত কারন দেখিয়ে তাকে আগরতলার গোবিন্দবল্লভ পন্থ হাসপাতালে ভর্তি করে দেওয়া হয় এবং ২৮ জানুয়ারি তার জায়গায় অন্য একজন কে প্রার্থী করা হয়।এসএফআই নেতা নির্মল বিশ্বাসকে তাঁর জায়গায় প্রার্থী করা হয়। তিনি জানান যে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ ছিলেন তার সত্বেও তাকে আনফিট বলে ঘোষনা করে তার দল। এবং তিনি দলের সব পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন ১৮ এপ্রিল।

আর এবার এই নামকরা সিপিএম নেতা যোগদান করলেন বিজেপিতে। তাকে প্রশ্ন করা হয় যে, কমিউনিস্ট নেতা থেকে নেতার রূপান্তরে তার কি কিছু অসুবিধা হবে? জবাবে তিনি বলেন যে না, আমি মানুষের হয়ে কাজ করব বলেই বিজেপিতে এসেছি এবং সেটাই করে যাব। আমি মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সবাই কে সাথে নিয়ে চলতে চাই।

কিন্তু পবিত্র কর যিনি বিধানসভার প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার তিনি বলেন যে বিশ্বজিত অসুস্থ ছিলেন। তার অবস্থা ক্রমাগত খারাপ হয়ে যাচ্ছিল তাই তার নাম আমরা বাধ্য হয়েই বাতিল করি।

#অগ্নিপুত্র