Press "Enter" to skip to content

নিবাসের আত্মহত্যার সাথে NRC’র কোন সম্পর্ক নেই, লাশ নিয়ে রাজনীতি বন্ধ করার আবেদন নিবাসের পরিবারের

বিজেপির স্টার প্রচারক নিবাস সরকার বৃহস্পতিবার দুপুরে নদীয়া জেলার রানাঘাতে আত্মহত্যা করেন। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের সময় তিনি ভগবান হনুমান সাজে সেজেছিলেন। নিবাস সরকার রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের কার্যকরতা তথা শিল্পীও ছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ এর সময় ট্যুইটারে রানাঘাটে বিজেপির প্রচারে নিবাস এর ছবি শেয়ার করেছিলেন। আর এরপর নিবাস সরকার সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

নদীয়ার বগুলা জেলার মণ্ডল সভাপতি তাপস ঘোষ নিবাস সরকারের মৃত্যুর খবর পান। তাপস ঘোষকে বিজেপির স্টার প্রচারকের মৃত্যুর খবর নিবাস সরকারের ভাই দেন। তাপস ঘোষ জানান, ‘বৃহস্পতিবার দুপুরে নিবাস বাথরুমে যায়, আর তাঁর কিছুক্ষণ পর সে হাতে একটি শিশি নিয়ে বেড়িয়ে এসে তাঁর ভাইকে জানায় যে, সে বিষ খেয়েছে। নিবাস তাঁর ভাইকে জানায় যে, সে নিজের জীবন নিয়ে খুব দুঃখী। আর সেই কারণেই সে এই কাজ করেছে।” এরপর নিবাসের ভাই তাঁকে কৃষ্ণনগর হাসপাতালে নিয়ে যায়, কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তাতেই নিবাসের মৃত্যু হয়। তাপস ঘোষ জানান, এটা পারিবারিক মামলা। নিবাসের ছেলে রাজস্থানের উদয়পুরে ডাক্তার।

নিবাস সরকার পশ্চিমবঙ্গে রানাঘাটের বাসিন্দা। কিন্তু তিনি নিজের পরিবারের সাথে রাজস্থানের উদয়পুরে শিফট হয়ে যান। নিবাসের আত্মহত্যার পর সোশ্যাল মিডিয়া ছড়িয়ে পড়ছে যে, এনআরসি আতঙ্কে নিবাস আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু নিবাসের ভাই জানান, সেরকম কোন ব্যাপার না। নিবাসের আত্মহত্যার সাথে এনআরসি-এর কোন সম্পর্ক নেই। কিছু মানুষ লাশ নিয়ে রাজনীতি করার জন্য এহেন অপপ্রচার চালাচ্ছে। নিবাসের ভাই সবার কাছে আবেদন করেন যে, তাঁরা কারোর মৃত্যুতে দুঃখ প্রকাশ না করতে পারলে, অন্তত লাশ নিয়ে যেন রাজনীতি না করে।

নিবাস সরকার ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনী প্রচারে রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের জন্য প্রচার করেন। নিবাসের মৃত্যুতে রানাঘাটের সাংসদ জগন্নাথ সরকার দুঃখ প্রকাশ করেন। এবং উনি বলেন, এত বড় সমর্থক আমরা আর কোনদিনও আর পাবনা হয়ত। ওনার আত্মার শান্তির জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা করেন জগন্নাথ সরকার।

জগন্নাথ সরকার বলেন, আমাদের দুজনের মধ্যে খুব ভাল সম্পর্ক ছিল। নিবাস আমার জন্য ভগবান হনুমান সেজে প্রচার করেছিল। সেটা আমি কোনদিনও ভুলবনা। জগন্নাথ সরকার বলেন, মানুষ লাশ নিয়ে রাজনীতি করার জন্য নিবাস সরকারের মৃত্যুর সাথে এনআরসি ইস্যু জুড়ে দিচ্ছে। আরেকদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও নিবাসের মৃত্যু নিয়ে শোক প্রকাশ করেন।

you're currently offline