Press "Enter" to skip to content

পশ্চিমবঙ্গকে নিয়ে বিশেষ ভাবনা কেন্দ্র ও রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের! দিলীপ, মুকুলের সাথে বৈঠকে বসতে পারেন অমিত শাহ।

এবার লোকসভা ভোটে বংলাকে পাখির চোখ করে সামনে এগোতে চাইছেন শিবির। অন্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের উপর বেশি জোর দিতে চলেছে কেন্দ্র ও রাজ্য নেতৃত্ব।
২০১৯ লোকসভা ভোট যত সামনে এগিয়ে আসছে ততই এইরকম ইংগিত পাওয়া যাচ্ছে। ৮ ও ৯ ই সেপ্টেম্বর বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি ্‌ এর নেতৃত্বে এক বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিল দেশের সমস্ত রাজ্যের ছোটোবড়ো নেতারা। তাদের কে সেই দিন রাজ্য পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রাখার নির্দেশ দেওয়া হয় বিজেপির কেন্দ্র কমিটির তরফে। রাজ্য বিজেপি দাবি করেছেন যে, এবার পঞ্চায়েত ভোটে তারা যা আসা করেছিলেন তার তুলনায় যথেষ্ট ভালো ফলাফল করেছে রাজ্য বিজেপি। তাই এই ধারাকে অব্যাহতি রাখতে চাইছে বিজেপি। গেরুয়া শিবির চান যে এবার পঞ্চায়েত যেমন ভালো ফল করেছে বিজেপি তেমনই লোকসভা ভোটেও এইরকম ফল যেন ধরে রাখা যায়।

বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ডল চান যে অন্ততপক্ষে এই রাজ্য থেকে ২২ টি আসন যাতে বিজেপি দখল করে। তাই মোদী -শাহ্‌ জুটি বাংলা নিয়ে একটু বেশি ভাবনাচিন্তা শুরু করেছেন।আগামী ১৪-১৫ ই সেপ্টেম্বর এর নেতৃত্বে রাজ্য কমিটি একটি বিশেষ বৈঠকে বসতে চলেছেন। সেই বৈঠকেই রাজ্যের ভাগ্য নির্ধারণ হতে চলেছে বলে দাবি এক নিউজ পোর্টালের।

সেই কারনে জাতীয় স্তরের বৈঠক থেকে বেশি কিছু পরিবর্তন করতে চাইছেন না বঙ্গ বিজেপি। দিলীপ ঘোষ এর কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না তিনি তার পুরোনো পদেই বহাল থাকছেন। বঙ্গ বিজেপির কোনো ক্ষতি করতে পারবে না মমতার দল এইদিন এমনটাই ইংগিত দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ্‌ রাজ্য বিজেপিকে নির্দেশ দিয়েছেন যাতে এখন থেকেই তারা মাঠে নেমে পড়েন তৃনমূলের বিরুদ্ধে। তারা যেন প্রচারে আরও গতি বাড়ান। তৃণমূলের
বিরুদ্ধে রাজনৈতিক লড়াই তীব্র করার কথাও বলেছেন তিনি। তাই দিলীপ ঘোষ, লকেটরা এখন থেকে কোমর বেঁধে ২০১৯ এর ভোটব্যাঙ্ক বাড়ানোর লক্ষ্যেই নেমে পড়তে চলেছেন। এবং রাজ্যের প্রতিটি জায়গায় তারা প্রচার করার কথাও ভাবছেন।
#অগ্নিপুত্র