Press "Enter" to skip to content

এই রাজ্যের নির্বাচনে কংগ্রেসকে সাফ করে ধামকাদার জয় বিজেপির! হতাশাগ্রস্থ সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী।

৫ রাজ্যে হওয়া বিধানসভা নির্বাচনের পর কংগ্রেস পার্টি একটু হলেও জীবন ফিরে পেয়েছে। ৫ রাজ্যে বিজেপির হার হয়েছে এবং কংগ্রেস তিনটি রাজ্যে সরকার গড়তে সক্ষম হয়েছে। রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও ছত্রিশগড়ে বিজেপিকে হারিয়ে কংগ্রেস সরকার গঠন করেছে যা নিয়ে বেশ উল্লাসিত কংগ্রেসের কার্যকর্তারা। অন্যদিকে বাকি দুই রাজ্যের তেলেঙ্গানায় টিআরএস এবং মিজোরাম মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্ট পার্টি সরকার গঠন করেছে। এই নির্বাচনের পর কংগ্রেস কার্যকর্তাদের সাথে সাথে উচ্চস্তরীয় কংগ্রেস নেতারাও খুশি ব্যাক্ত করেছিল। এমনকি লোকসভা ভোটে বিজেপিকে হারানোর সপ্ন দেখতে শুরু করেছে মায়াবতী মমতা থেকে অখিলেশ কেজরিওয়ালের মতো নেতারা। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী পদে বসার স্বপ্ন দেখতে শুরু করে দিয়েছেন।

সোনিয়া গান্ধী তার পুত্রকে ভারতের ক্ষমতায় বসানোর জন্য সমস্থ শক্তি লাগিয়ে প্রচার কাজ শুরু করেছে। কিন্তু এর মধ্যেই কংগ্রেরসের জন্য একটা খারাপ খবর সামনে এসেছে যা কংগ্রেসীদের হুশ উড়িয়ে দিয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের পর কংগ্রেস তাদের রাস্তা খুব পরিষ্কার মনে করছিল কিন্তু এরমধ্যে বেরিয়ে আসা হরিয়ানা পৌরসভা নির্বাচন কংগ্রেসের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে।

হরিয়ানার ৫ টি পুরনিগম নির্বাচনে কংগ্রেস পুরোপুরি সাফ হয়ে গেছে। বিজেপি প্রার্থীরা কংগ্রেসের পার্থী থেকে এত বড় ভোটে এগিয়ে গেছে যে কংগ্রেসের অস্থিত সংকটে পড়েছে। বড় বড় রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ হরিয়ানার রি নির্বাচনকে লোকসভার সেমিফাইনাল বলে আখ্যা দিয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে এই নির্বাচন বিজেপির পুনরায় ক্ষমতায় আসার ইঙ্গিত দিয়েছে।

যমুনানগর, পানিপথ, হিসার, রোহাতাক ও কার্নাল এই ৫ টি পৌরসভায় বিজেপি পার্টি কংগ্রেসকে সাফ করে বের করে দিয়েছে। যমুনানগর থেকে মদন সিং চৌহান ৯১,৬৪২ ভোট, রোহাতাক থেকে মনমহন গোয়াল, পানিপথ থেকে অভিনীত কৌর ১,২৬,৩২১ ভোট, কার্নাল থেকে রেনু বালা ৬৯,৯৬০ ভোট, হিসার থেকে গৌতম সারদান ৬৮,১৯৬ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছে। বিজেপির এই বড় জয় একদিকে যেমন কার্যকর্তাদের উৎসাহ প্রদান করেছে তেমনি কংগ্রেস মহলে ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে।

11 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.