Press "Enter" to skip to content

ঐতিহাসিক জয় বিজেপির: কংগ্রেসের গড়ে কংগ্রেসকে হারিয়ে জয়লাভ করলো বিজেপি।

রাফেল, রাফেল করে ী নেতা সুরজেবালা ভোট চেয়ে বেড়িয়েছিল বিধানসভা এলাকায়। আজ সেই এলাকার ভোটের রেজাল্ট সামনে চলে এসেছে। রাফলের উপর মিথ্যা অভিযোগ তুলে কংগ্রেসী নেতা যে ভোট চেয়েছিল তার যোগ্য জবাব দিয়েছে জনগণ। জানিয়েদি জিন্দকে কংগ্রেসের গড় নামে পরিচিত, কংগ্রেসের সেই গড়ে কংগ্রেসকে পুরোপুরি সাফ করে দিয়েছে বিজেপি পার্টি।

ভারতের রাজনিতির দীর্ঘ ইতিহাসের জিন্দ এর আসনে কখনোই জিততে পারেনি কিন্তু কংগ্রেস বহু সময় ধরে জিন্দে আধিপত্য বজায় রেখেছে। এমনকি কিছু অন্য পার্টিও এই আসনে জিতেছে। তবে বিজেপি কখনই জিতেনি। জিন্দ এলাকায় জাঠ সম্প্রদায়ের মানুষ বহুসংখক রয়েছে, তাই সুরজেবালা এখানে জাঠ সেজে ভোটের প্রচার করতে শুরু করেছিল। সুরজেবালা ওই এলাকায় নিজেকে জাঠ নেতা বলে প্রচার চালিয়েছিল একই সাথে নিজেকে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবেও দেখিয়েছিল সুরজেবালা।

সুরজেবালা জনগণের কাছে বহু পতিশ্রুতি রেখেছিল। নিজেকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী বলে দাবি করেছিল যাতে জনগন উনাকে বড় নেতা মনে করে ভোট প্রদান করে। একইসাথে জাতিবাদী কার্ড খেলে নিজেকে জাঠদরদী নেতা হিসেবে দাবি করেছিল। এমনকি রাফেল নিয়েও মিথ্যা অভিযোগ তুলে নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহকে চোর বলেছিল।

তবে আজ নির্বাচন এর ফলাফল সামনে চলে এসেছে এবং জনগণ সুরজেবালাকে শিক্ষা দিয়েছে। বিজেপি বড় অন্তরের সাথে কংগ্রেসকে হারিয়ে দিয়েছে এবং বিজয়ী হয়েছে। কংগ্রেস দ্বিতীয় স্থানেও আসতে পারেনি। নির্বাচনের লড়াইতে তৃতীয় স্থান পেয়েছে কংগ্রেস। জনগণ বুঝিয়ে দিয়েছে যে মিথ্যা প্রচার করে আর মিডিয়াকে কিনে দালালি করলেই জেতা যাবে না। জনতা একসাথে কংগ্রেস ও দালাল মিডিয়া দুই গালে থাপ্পড় দিয়েছে।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.