Press "Enter" to skip to content

দীপাবলীর আগে বিজেপিতে খুশির হাওয়া! হরিয়ানাতে সরকার গড়ার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় বিজেপি আবারো বড়ো জয় পেয়েছে এবং বিজেপি উভয় রাজ্যেই বড় দল হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছে। এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ  বিজেপি সদর দফতরে পৌঁছে উভয় রাজ্যের মানুষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। হরিয়ানার ফলাফল সম্পর্কে, বিজেপির জাতীয় সভাপতি অমিত শাহ মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর এবং রাজ্য সভাপতি সুভাষ বড়ালাকে জানিয়েছেন। শাহ টুইটে লিখেছেন, “গত ৫ বছরে মোদীজিয়র কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে খট্টর সরকার হরিয়ানার জনগণের কল্যাণে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়েছে।

অমিত শাহ আরও বলেন, “বিজেপিকে বৃহত্তম দল হিসাবে পুনরায় সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি জনসাধারণকে অভিনন্দন জানাই।” মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর, সুভাষ বড়লা এবং সমস্ত কর্মীদের অভিনন্দন। এছাড়াও মহারাষ্ট্র এর জয়ের জন্য মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাাবিসকেও অভিনন্দন জানান। বিজেপির সদর দফতরে পৌঁছে যাওয়া প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন যে আমি বিজেপির প্রতি আস্থা প্রকাশের জন্য মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানার মানুষকে ধন্যবাদ জানাই। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছিলেন যে জনগণ দিওয়ালির আগে আশীর্বাদ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছিলেন যে বিজেপি মহারাষ্ট্র ইউনিট এবং বিজেপি হরিয়ানা ইউনিটের সমস্ত কর্মকর্তা, সমস্ত কর্মী, তারা জনগণের আস্থা অর্জনের জন্য খুব চেষ্টা করেছিলেন। জনগণের আশীর্বাদ পেয়েছিলেন, আমি তাদেরও অনেক অভিনন্দন জানাচ্ছি। হরিয়ানায় বিজেপির সরকার হবে কিনা তাই নিয়ে লাগাতার প্রশ্নঃ উঠেছে তবে অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদী দুজনেই ইতিবাচক সঙ্কেত দিয়েছেন। অমিত শাহ টুইট করে হরিয়ানায় সরকার গঠনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। অন্যদিকে নরেন্দ্র মোদী বিজেপি সদর দপ্তরে ঢুকেই জয়ের সাইন প্রকাশ করেছেন। অর্থাৎ ২ টি আঙ্গুল দেখিয়ে কার্যকর্তাদের বড়ো ইঙ্গিত দিয়েছেন। এমনিতেও রাজনীতি চাণক্য হিসেবে পরিচিত অমিত শাহ মাঠে নেমে পড়েছেন এর অর্থ কিছু একটা বড়ো হওয়ার সম্ভবনা অবশ্যই রয়েছে।