Press "Enter" to skip to content

এক মাস হতে না হতেই আবার মুখ থুবড়ে পড়লো কংগ্রেস ! জনতার ভরসা আবার সেই বিজেপিতেই ।

মানুষের মন খুব দ্রুত বদল হয়। মানুষ কখন যে কি চাই সেটা সে নিজেও জানে না। আর এমনই হল ের সাথে। কয়েকদিন আগে দেশের তিনটি রাজ্যে বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করেছে তার পর থেকে বেশ নিশ্চিন্তে দেখা গিয়েছে দল কে। , মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্রিশগড়ে জয়ের পর বেশ আনন্দে ছিল । কিন্তু তাদের সেই আনন্দ আর বেশিদিন আনন্দ হয়ে রইলো না। যে রাজস্থানের মানুষ কে টেনে উপরে তুলেছিল এবার সেই রাজস্থানবাসী কে মাটিতে ফেলে দিল। রাজস্থানের জনগন মাত্র ২০ দিনের মধ্যেই মিথ্যা প্রতিসূতি দেওয়া ের এত খুশি বদলে দিল দুঃখতে।

কংগ্রেসের নোংরা রাজনীতির কারণে রাজনৈতিক বিষেজ্ঞরা বলে দিয়েছিল যে, কংগ্রেস বেশিদিন রাজস্থানের মানুষ কে বোকা বানিয়ে রাখতে পারবে না। আর সেটাই হল কংগ্রেসের সাথে, এবার রাহুল মুখ থুবড়ে পড়ল রাজস্থানের জেলা পরিষদের উপনির্বাচন এবং পঞ্চায়েত সমিতির নির্বাচনে। রাজস্থানে মোট ৯ টি পঞ্চায়েত সমিতির উপনির্বাচন হয়েছিল। আর সেই নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর দেখা যায় যে, এখানে ৯ টি আসনের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে এখানে হেসে খেলে দখল করে নিয়েছে ৫ টি আসন। অপরদিকে রাজস্থানের সমস্ত ছোটো ছোটো দল গুলির সাহায্য নিয়ে তাদের কাছে ভিক্ষার পাত্র হয়ে কংগ্রেস দখল করতে সক্ষম হয়েছে মাত্র ৪ টি পঞ্চায়েত সমিতির আসন।

যেহেতু এই মুহূর্তে রাজস্থানে ক্ষমতায় রয়েছে কংগ্রেস। তাই সবাই ধরেই নিয়েছিল যে এখন রাজস্থানের উপ নির্বাচনে একটাও সিট বিজেপি দখল করতে পারবে না। কিন্তু না সেটা হল না বরং বিজেপি পেল সবচেয়ে বেশী আসন। কারণ কংগ্রেসের পরিবারতন্ত্র নোংরা রাজনীতি ধরে ফেলেছে রাজস্থানবাসী। তাই রাজস্থানের জনতা মাত্র ২০ দিনের মধ্যেই তাদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিল। একদিকে যখন কংগ্রেস জয়লাভ করার জন্য চেষ্টা করেও পারছে না সেই সময় খুব সহজেই আরেকটি জেলা পরিষদের উপনির্বাচনেও বিজেপি পেল খুব সহজ জয়।

বিজেপি বড় জয় পেয়েছে রাজস্থানের আলবর জেলায় হওয়া জেলা পরিষদটিতে। উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনে এই আলবর লোকসভা কেন্দ্রটিতে কংগ্রেসের কাছে পরাজিত হয়েছিল বিজেপি। আবার বিধানসভায় উপনির্বাচনেও বিজেপি এখানে পরাজিত হয়েছিল। কিন্তু এবার ক্ষমতায় থেকেও এই সিটটিতে জয়লাভ করতে পারল না কংগ্রেস, অপরদিকে এতদিন ধরে বারবার হাতছাড়া হওয়া এই সিটটি এবার বিজেপির দখলে চলে এল। এর কারণ হিসেবে উঠে আসছে কংগ্রেস এখানে বারবার জয়লাভ করার পরও এই এলাকার উন্নয়নের জন্য কোনো বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নি। বরং কংগ্রেসের নোংড়া রাজনীতির ফল ভোগ করতে হয়েছে এখানকার জনগণ কে।

এই সকল দেখার পর রাজনৈতিক বিষেজ্ঞরা মনে করছেন যে, কংগ্রেস যেভাবে তিন রাজ্যে জয়ের পর নিজেদের ভোল বদল করেছে এরই প্রভাব পড়েছে কংগ্রেসের ভোটের উপর। কংগ্রেস ভোটের জেতার পর রাজস্থানে দেখা গিয়েছে ইউরিয়া সংকট যেটা বিজেপির এতদিনের রাজত্বে কোনো দিন হয় নি সেটাই হয়েছে। কংগ্রেসের সবচেয়ে কুৎসিত দিকটি তখন রাজস্থানবাসীর কাছে পরিস্কার হয়েছে যখন কংগ্রেসের তরফে এই ইউরিয়ার ন্যায্য দাবি করার জন্য গরিব কৃষকদের উপর লাঠিচার্জ করানো হয়েছে পুলিশ দ্বারা। এবং ভোটের আগে কংগ্রেসের অন্যতম প্রতিসূতি ছিল কৃষিঋণ মুকুব করে দেওয়া এখন ভোটে জেতার পর তারা সেটা না করার কথা বলছে। তাই এখন রাজস্থানবাসী কংগ্রেসের সমস্ত কারচুপি বুঝে গিয়েছে এবং এইজন্যই তারা আর কংগ্রেসের ফাঁদে পা দিতে চাইছেন না। তাই রাজস্থানের সাধারণ মানুষের ভরসা কংগ্রেসের উপর থেকে সরে গিয়ে বিজেপির উপর ফিরে যাচ্ছে।
#অগ্নিপুত্র


 

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.