Press "Enter" to skip to content

BSF, ARMY ও বায়ুসেনাকে মোদী সরকার দিল আদেশ: বললো তৈরি থাকবেন…

পাকিস্থানের উপর এয়ার স্ট্রাইক করে ভারত ৪৪ জন বলিদানি জওয়ানদের বদলা নিতে শুরু করে দিয়েছে। ভারতের বায়ুসেনা পাকিস্থানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আবাস থেকে মাত্র ৪৫ কিমি দূরে আতঙ্কবাদীদের ট্রেনিং ক্যাম্পের উপর তান্ডব করে দিয়েছে। বায়ু সেনার স্ট্রাইকের ফল পাকিস্থানের দ্বারা পালিত প্রায় ৪০০ আতঙ্কবাদী শেষ হয়ে গেছে। ভারতের বায়ুসেনার সামনে পাকিস্থানের এয়ার ডিফেন্স সম্পুর্নভাবে ব্যার্থ হয়ে গেছে।

বায়ু সেনার এই কার্যবাহীর পর ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স হাই এলার্টে রয়েছে। ভারতের বিএসএফ,  বায়ুসেনা ও আর্মিকে আন্তর্জাতিক বর্ডারে এবং LOC তে হাই এলার্ট থাকার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। একইসাথে এটাও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে যদি পাকিস্থানের এয়ারফোর্স কোনো কার্যবাহী করার চেষ্টা করে তাহলে ভারত যেন তার উপযুক্ত জবাব দেয়। নিউজ এজেন্সি এএনআই এই প্রকাশিত করেছে।

অন্যদিকে পাকিস্থানে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মামুদ খুরেসী একটা বৈঠক আয়োজন করেছে। জঙ্গির দেশ পাকিস্থানের ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের পর প্যানিক সৃষ্টি হয়েছে। পাকিস্থানের সরকার চীনের সাথেও সম্পর্কে রয়েছে এবং  চীনের থেকে পরামর্শ নিচ্ছে। ভারতের স্ট্রাইকের ফলে পাকিস্থানে জইস-ই-মহম্মদের কুখ্যাত কামান্ডোর সহ ৪০০ জন শেষ হওয়ার ফলে পাকিস্থানের মিডিয়াও পাক সরকারের উপর চাপ সৃস্টি করেছে। ভারতের ১২ টি বিমানের সামনে কিভাবে পাকিস্থানের ডিফেন্স সিস্টেম ব্যার্থ হয়ে গেল সেই নিয়েই প্রশ্ন তুলছে পাক মিডিয়া।

এখন পরিস্থিতি যদি যুদ্ধের দিকে মোড় নেয়, তার জন্যেও প্রস্তুত রয়েছে ভারত। ভারত সরকারের নির্দেশমতো আগে থাকতেই জম্মুকাশ্মীরে রেশন ও খাদ্য জমা করে রাখা হয়েছে। বায়ু সেনার অপারেশন সম্পুর্ন হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী মোদী, সুরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সিতারমন,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং NSA অজিত দোভাল একটা জরুরী মিটিং সেরে ফেলেছে। মিটিংয়ে পরবর্তী কূটনৈতিক ও সামরিক পদক্ষেপ কি হবে তাই নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.