Press "Enter" to skip to content

বড়ো খবর: বুলেট ট্রেনের ট্র্যাক তৈরির জিনিসপত্র জাপান থেকে এসে পৌঁছালো ভারতে।

মুম্বাই থেকে আমেদাবাদ দেশের প্রথম খুব শীঘ্রই চালু হতে চলেছে। ২০২২ এর মধ্যে এই ট্রেন চালু করার পরিকল্পনা করে ফেলেছে মোদী সরকার। এই প্রজেক্ট এর জন্য ফান্ডিং করছে। প্রজেক্ট সম্পূন্ন করার জন্য অন্তিম সমীয়সীমা রয়েছে ডিসেম্বর ২০২৩ সাল পর্যন্ত। কিন্তু সরকার এই প্রজেক্ট ১৫ আগস্ট ২০২২ এর মধ্যে সম্পূন্ন করতে চাইছে। প্রধানমন্ত্রী মোদী চান স্বাধীনতা দিবসের ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে দেশকে উপহার দিতে চান। এর মধ্যে ের কোচ ভারত দেশে নির্মাণ করার পস্তাব রেখেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, জাপান থেকে ের প্রথম ট্র্যাক ও বাকি বস্তু ভারতের ভাডোডোরায় এসে পৌঁছেছে।

হাই স্ট্রেন কংক্রিট স্লাপ শুধুমাত্র জাপানে তৈরি করা হয় যার উপর দিয়ে বুলেট ট্রেন চালানো সম্ভব হয়। বুলেট ট্রেন প্রজেক্ট এর জন্য ২৫০ টন ওজনের ২০ টি স্লিপার স্লাপ জাপান থেকে ভারতে আনা হয়েছে। আমেদাবাদ থেকে মুম্বাই পর্যন্ত ৫০৮ কিমি এর মধ্যে বুলেট ট্রেন চালানো হবে। ২০০ মিটার ট্রাক তৈরির কাজ হাই স্পীড রেল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, ভাডোডোরাই করানো হচ্ছে।

এখানে ছাত্র ও রেল কর্মীদের ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। বুলেট ট্রেনের জন্য মুম্বাই থেকে আমেদাবাদ পর্যন্ত জমি অধিগ্রহনের কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। ১৯৮ টি গ্রামের মধ্যে ১৬৪ টি গ্রামের জমি অধিগ্রহণ করে ফেলা হয়েছে।কিছু গ্রামে অবশ্য এই নিয়ে মামলা লাগাতার চলছে যা খুব শীঘ্রই সরকার সমাধান করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

ভারতে তৈরি হওয়া বুলেট ট্রেনে নেটওয়ার্ক এর দৈর্ঘ্য ৫০৮ কিমি হবে যার ৩৫০ কিমি অংশ গুজরাটে থাকবে এবং ১৫০ কিমি অংশ মহারাষ্ট্রে থাকবে। এই নেটওয়ার্ক এর মধ্যে ১২ টি স্টেশন থাকবে। প্রত্যেক বুলেট ট্রেনে ১০ টি কোচ থাকবে, যার মধ্যে ১ টি বিজনেস ক্লাস ও ৯ টি সাধারণ কোচ থাকবে। বুলেট ট্রেনে ব্যাক্তি প্রতি নূন্যতম মূল্য ২৫০ টাকা থাকবে এবং সর্বাধিক ভাড়া থাকবে ৩০০০ টাকা।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.