Press "Enter" to skip to content

প্রকাশ্যে এলো কংগ্রেস আমলে আরেক বড়ো দুর্নীতি! ক্ষমতার শেষ ৭ দিনে সোনিয়া গান্ধীর নেতৃত্বে হয়েছিল বিশাল অঙ্কের ঘোটালা।

কংগ্রেস আমলে হওয়া এবার আর একটা বড় দুর্নীতি সামনে এসেছে যা ভারতীয় রাজনৈতিক জগৎকে তোলপাড় করে তুলেছে। ইতালির গান্ধী ও এর নেতৃত্বে UPA সরকার তাদের শেষ কার্যকালে এমন ঘোটালা করেছে যার আশা কোনো দেশবাসী করেনি। কংগ্রেস সরকার তাদের দ্বিতীয় কার্যকাল শেষ হতে হতে দেশের আর্থিক ব্যবস্থাকে দুর্বল করে দিয়ে এমন দুর্নীতি করেছে যা এখন কংগ্রেসের গলার কাঁটায় পরিণত হয়েছে। CBI এর হাতে যে প্রমান এসেছে সেই অনুযায়ী ‘গোল্ড ইমপোর্ট স্কিম’ এ বড়ো ঘোটালা করা হয়েছে। সবথেকে বড়ো ব্যাপারে এই যে দুর্নীতি UPA সরকারের কার্যকালের শেষ ৭ দিনে করা হয়েছে। UPA সরকারের আমলে শেষ ৭ দিনে কিছু জুয়েলারি কোম্পানির চাহিদাকে কোন যাচাই না করেই দ্রুত মেনে নেওয়া হয়েছিল।

জানিয়ে দি, তামিলনাড়ুর ৬ জুয়েলারী কোম্পানি ৮০:২০ গোল্ড ইমপোর্ট শর্তে ডিল দেওয়ার দাবিতে আবেদন করেছিল। ইতালির সোনিয়া গান্ধী চালিত UPA সরকার নিজেদের কার্যকাল শেষ হতে চলেছে দেখে কোনো তথ্য যাচাই না করেই শেষ সপ্তাহে এটা মেনে নিয়েছিল। ইকোনোমিকস টাইমস থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী প্রথম থেকে খুঁটিয়ে তদন্ত করার পর এই তথ্য তাদের হাতে এসেছে। ২০১৬ এর কেগ রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল যে এই স্কিম এই জন্য সরকারি খাজনার ১ লক্ষ কোটি টাকার বিশাল অঙ্কের ক্ষতি হয়েছে।

২০১৪ সালে নভেম্বরে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে NDA সরকার এই স্কিম বাতিল করে দিয়েছে। CBI তদন্তে জানা গেছে এই সব আবেদনগুলি তামিলনাড়ু থেকে এসেছিল। আবেদনের ভাষা ও ফরমেট একই ধরণের। অবশ্য আবেদন করার তারিখের মধ্যে ভিন্নতা রয়েছে। এই সব আবেদনগুলি ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তে দেওয়া হয়েছিল। RBI ২০১৪ এর নির্বাচনের ফলাফল আসার পর এই সংক্রান্ত নোটিফিকেশন জারি করেছিল।

উল্লেখ্য, CBI এর প্রাথমিক তদন্তে সময় প্রমাণের অভাবে এই মামলা আটকে গিয়েছিল এটা দ্বিতীয়বার যখন সিবিআই এই মামলায় প্রিলিমিনারি ইনকোয়ারি শুরু করে এটা কার্যালয়ের সামনে রেখেছে। এই ঘটনা সামনে আসার পর কংগ্রেসের কিছু বড়ো নেতা ও RBI আধিকারিকদের ভূমিকার উপর CBI নজর রাখছে। এমনিতেই কংগ্রেসের সরকার বড়ো বড়ো দুর্নীতি করার জন্য কুখ্যাত হয়ে রয়েছে তার মধ্যে এমন একটা বড়ো দুর্নীতি দেশের সামনে আসায় চাপে রয়েছে সোনিয়া থেকে মনমোহনের মতো নেতা নেত্রীরা।