Press "Enter" to skip to content

অবশেষে সিবিআই এর সামনে হাজিরা দিতে এলেন মমতা ঘনিষ্ঠ আইপিএস অফিসার রাজীব কুমার

নাটক, রাজনীতি, ধরনা এই রাজীব কুমারের () দিকে সিবিআই হাত বাড়ানোর পর থেকেই এটাই দেখছে রাজ্যবাসী। বারবার সিবিআই এর ডাকে সারা না দেওয়ার জন্য একদিন সন্ধ্যে বেলায় হঠাত কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে পৌঁছে গেছিল সিবিআই এর কর্তা। এই খবর পেয়ে পুলিশের অফিসারেরা সিবিআই এর আধিকারিকের সাথে ধ্বস্তাধ্বস্তি করে তাঁকে গ্রেফতার করেছিল।

সিবিআই এর কর্তাকে গ্রেফতারের পরেও থামেনি নাটক। রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী , কাণ্ডে তথ্য প্রমাণ লোপাটে অভিযুক্ত রাজীব কুমারকে বাঁচানোর জন্য ধরনায় বসে পড়েছিলেন। এরপর এই মামলা যায় সুপ্রিম কোর্টে। সেখান থেকে নির্দেশ দেওয়া হয় যে, রাজীব কুমারকে সিবিআই এর জেরার সন্মুখিন হতেই হবে। এবং সেটা কলকাতা না, শিলংয়ে গিয়ে রাজীব কুমারকে সিবিআই এর সামনে হাজিরা দিতে হবে।

এরসাথে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয় যে, রাজীব কুমারকে কোন ভাবেই হেনস্থা আর গ্রেফতার করতে পারবে না সিবিআই। রাজীব কুমারকে জেরার পর এবং নানা রকম তদন্ত করে রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ জোগাড় করে ফের শির্ষ আদালতে জানে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। সব তথ্য প্রমাণ খতিয়ে দেখে রাজীব কুমারের রক্ষাকবচ তুলে নেয় সুপ্রিম কোর্ট।

এরপরে আবারও রাজীব কুমারকে জেরার জন তলব করে সিবিআই। কিন্তু নানারকম টালবাহানা করে কোন ভাবে জেরা এড়িয়ে যাচ্ছিল ের প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমার। কিন্তু শুক্রবার সকাল ১০ঃ৪৫ নাগাদ ওনাকে সি কমপ্লেক্সে সিবিআই এর সামনে হাজিরা দিতে যেতে হয়। এর আগেই সিবিআই রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিশ জারি করে রাজীব কুমারের ভ্রমণের উপর নিশধাজ্ঞা জারি করেছিল।

রাজীব কুমার ছাড়াও কলকাতা পুলিশ কর্তা অর্ণব ঘোষকেও বেশ কয়েকবার জেরা করেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। ইতিমধ্যে অর্ণবের কাছ থেকে সারদা সংক্রান্ত নানা তথ্য সিবিআইয়ের হাতে এসেছে। এছাড়াও ৪টি রহস্যময় ট্রাঙ্ক বিধাননগর পুলিশের তরফ থেকে সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। সেটি সমস্ত নথি খতিয়ে দেখেছে সিবিআই। তবে আজ রাজীব কুমার হাজিরা দিচ্ছেন। সিবিআই তাকে কীভাবে জেরা করে এখন সেটাই দেখার।

Comments are closed.