Press "Enter" to skip to content

ব্রেকিং খবর: চাইনা এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম পাকিস্থানের JF-17 ফাইটার জেট উড়িয়ে দিল! মৃত্যু পাইলট মেহমুদের..

পাকিস্থানের সাথে যেটা হচ্ছে সেটা শব্দের ভাষায় কি বলা যাবে, তা আমাদের ধারণার বাইরে। এবার হয়তো কাঁদতেও ভুলে যাবে পাকিস্থান। কয়েক দিন আগেই পাকিস্থান চীনের কাছে ‘এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম’ চেয়েছিল। ভারত আক্রমন করতে পারে এই চিন্তা প্রকাশ করে পাকিস্থানের সরকার চীনের কাছে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম দেওয়ার জন্য আবেদন করেছিল। চীন, পাকিস্থানের আবেদনে সাড়া দিয়ে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম প্রদান করেছিল। চীনের থেকে পাওয়া এয়ার ডিফেন্স পাকিস্থান তাদের সৈন্য ঘাঁটিতে লাগিয়েছিল নিজেদের সুরক্ষার জন্য।

স্মরণ করিয়ে দি, যখন ভারত পাকিস্থানের বালাকোটে স্ট্রাইক করেছিল তখন পাকিস্থানের এয়ার ডিফেন্স সম্পুর্ন ফেল হয়েছিল। এই কারণে ভারতের ফাইটার জেট থেকে বাঁচতে এবং পাকিস্থান নিজের সুরক্ষা বাড়াতে চীনের থেকে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম নিয়েছে। এখন খবর আসছে যে পাকিস্থানে চীনের যে ডিফেন্স সিস্টেম নিযুক্ত রয়েছে তা পাকিস্থানের এক ফাইটার জেটকে উড়িয়ে দিয়েছে।

পাকিস্থানের সেনা ভুলবশত চীন থেকে পাওয়া চতুর্থ জেনারেশন এর JF-17 ফাইটার জেটকে এয়ার ডিফেন্স দিয়ে উড়িয়ে দিয়েছে। পাকিস্থানের মুলতানে এই ঘটনা ঘটেছে। মেহেমুদ নামক পাইলট পাকিস্থানের এই জেট চালাচ্ছিল। সেই সময় পাক সেনা এয়ার ডিফেন্স দিয়ে JF-17 জেটকে ভুলবশত উড়িয়ে দেয়। নিজেদের সুরক্ষার জন্য পাকিস্থান এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম নিযুক্ত করেছিল কিন্তু সেই ডিফেন্স সিস্টেম দিয়ে তারা নিজেদের ফাইটার জেট ধ্বংস করতে শুরু করেছে।

এই পরিস্থিতিকে কি বলা যায়, সেটা ভাষায় প্রকাশ করা মুশকিল। প্রথমে তো পাকিস্থান চীনের থেকে ফাইটার জেট নিয়েছিল তারপর এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম নিয়েছিল। আর তারপর চাইনা মাল দিয়ে চাইনা মালকে উড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্থানের মূর্খ সেনা।  নিজেদের সুরক্ষার জন্য যে ডিফেন্স সিস্টেম লাগিয়েছিল তা দিয়ে নিজেদের ফাইটার জেট JF-17 উড়িয়ে দিয়েছে। পাইলট মেহেমুদ ফাইটার জেটের সাথে সাথে শেষ হয়ে গেছে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.