Press "Enter" to skip to content

কংগ্রেসের কারনামা: ছাত্রীদের সাইকেল বিতরণ করে ফটো তুলিয়ে আবার কেড়ে নিল সাইকেল।

সরকারি স্কুলের ছাত্রীদের ডেকে পাঠানো হয়। মেয়েরা আনন্দিত ছিল কারণ তাদের সাইকেল পাবার কথা ছিল। বেচারারা এসেছিল খুশি হয়ে কিন্তু বাড়ি ফিরল হতাশ হয়ে। ঘটনা পাঞ্জাবের যেখানে কংগ্রেসের সরকার স্কুল ছাত্রীদের সাথে এই নির্লজ্জ্ব ব্যাবহার করেছে। মোহালিতে গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে পাঞ্জাবের মন্ত্রী রাজিয়া সুলতানা ছাত্রীদের ১০০ টি সাইকেল বিতরণ করে। কিন্তু এই সাইকেল ছাত্রীরা বাড়ি নিয়ে যেতে পারেনি। শুধুমাত্র বিতরণ করার ভিডিও তৈরী করে, ফটো তুলে আবার সাইকেল কেড়ে নেওয়া হয়।

ফটো ও ভিডিও তোলার কাজ সম্পন্ন হওয়া মাত্র ছাত্রীদের দেওয়া সাইকেল কেড়ে নিয়ে ট্রাকে লোড করে দেওয়া হয়। এই কুকৃত্য কারনামা গভর্মেরমেন্ট কলেজ ফেজ-৬ এ ঘটিত হয়েছে। মেয়েরা “সোহানা কন্যা স্কুল” এর ছাত্রী ছিল। ছাত্রীদের সাইকেল দেওয়ার জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছিল।

ছাত্রীদের বলা হয়, তোমাদেরকে পরে সাইকেল দিয়ে দেওয়া হবে। এই বক্তব্যে দিয়ে সাইকেল কেড়ে নেওয়া হয়। ছাত্রীদের দেওয়া সমস্ত সাইকেল আবার কেড়ে নিয়ে ট্রাকে লোড করে দেওয়া হয়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এবং নির্লজ্জ্ব ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। কিন্তু ঘটনাটি কংগ্রেস সরকারের হওয়ায় মিডিয়া পুরো খবর চেপে গেছে এবং খবরে শুধুমাত্র সাইকেল বিতরণের ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছে।

দালাল বিক্রীত মিডিয়া গণতন্ত্র দিবসের পরদিন খবর ছেপে লিখেছে যে রাজিয়া সুলতানার নেতৃত্বে গরিব ছাত্রীদের সাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। যে বিষয়গুলি মিডিয়ার তুলে ধরা উচিত সেই বিষয়কেই চেপে গিয়েছে টাকা নিয়ে দালালি করা মিডিয়া। প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন গরিব বাচ্চাদের সাথে যে নিষ্ঠুর তামাশা করা হয়েছে তা পুরোপুরি লুকিয়ে কংগ্রেসের গুনগান গেয়েছে সংবাদমাধ্যমগুলি। তবে খারাপের মধ্যেও কিছু ভালো লুকিয়ে থাকে, পাঞ্জাবে আমাদের এক সহকারী সংবাদ মাধ্যম কংগ্রেসের কুকৃত্যকে তুলে ধরেছে যার পেপার কাটিং এর ছবি নীচে দেওয়া হলো।

সাইকেল দেওয়ার আশা দেখিয়ে গরিব ছাত্রীদের সাথে যে ব্যাবহার কংগ্রেস করেছে সেটা তাদের দানবরূপী সরূপকে প্রতিফলিত করে। গরিবদের সহায়তার নামে তাদের কাঁদিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে কংগ্রেস পার্টি।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.