Press "Enter" to skip to content

পাকিস্থান থেকে ১ দিনে যে ভালোবাসা পেয়েছি সারাজীবন ভারত থেকে তা পাইনি- কংগ্রেস নেতা নবজ্যোত সিং সিদ্ধু।

জঙ্গির দেশ পাকিস্থান সফরের পর কংগ্রেস নেতা নবজ্যোত সিং সিদ্ধু ভারতে ফিরে এসেছেন। আপনাদের জানিয়ে দি, ভারতরত্ন বাজপেয়ীর স্বর্গবাসের পর যখন সারা দেশ শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছিল এবং নেতা মন্ত্রীরা শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়ার উপস্থিত হয়েছিল তখন কণগ্রেস নেতা নবজ্যোত সিং সিদ্ধু পৌঁছেছিলেন খানের শপদ গ্রহণ অনুষ্ঠানে পাকিস্থানে। এটা সেই বিশ্বাসঘাতক যিনি এককালে অটল ী বাজপেয়ীকে নিজের পিতাতুল্য বলে মিডিয়ার সামনে প্রকাশ করত। আজ নবজ্যোত সিং সিদ্ধু পাকিস্থানে গিয়েছে বলে তাকে বিশ্বাসঘাতক বলা হয়নি বরং ইনি পাকিস্থানের জেনারেল বাজউয়ার সাথে গলাগলি করেছেন বলেই বিশ্বাসঘাতক বলা হচ্ছে।

পাকিস্থানের যে জঙ্গিদের সর্দার ভারতীয় সেনার উপর পেছন থেকে গুলি করে হামলা করে তার সাথেই গলাগলি করে বেইমানের পরিচয় দিয়েছেন নবজ্যোত সিং সিদ্ধু। এমনকি পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাষ্ট্রপতির সাথে সাথে বসে গল্পগুজবে মেতে উঠেছিলেন এই নবজ্যোত সিং সিদ্ধু। এখন ভারতে ফিরে এসে এই সিদ্ধু ভারত ও পাকিস্থান সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেছেন যা শোনার পর আপনারও মাথা গরম হয়ে উঠবে।

বিশ্বাসঘাতক নবজ্যোত সিং সিদ্ধু পাকিস্থানের প্রশংসা করে বলেছেন, ১ দিনে পাকিস্থান থেকে যে ভালোবাসা আমি পেয়েছি তা সারাজীবন ভারত থেকে পেয়েছি। হ্যাঁ ঠিক এই কথাটাই বলেছেন নবজ্যোত সিং সিদ্ধু। প্রবক্তা বলেছেন, পাকিস্থান সিদ্ধুকে এমন কি দিয়েছে? পাকিস্থান তো ভারতকে বরাবর আতঙ্কবাদী ও আর আমাদের সেনাদের পেছন থেকে হামলা করা ছাড়া কিছুই দেয়নি। আপনাদের স্মরণ করিয়ে দি, কংগ্রেস নেতা মনিশঙ্কর আয়ার পাকিস্থানে সফরের পর এই একই ধরনের মন্তব্য করেছিলেন।

এখন প্রশ্ন উঠেছে এই কংগ্রেসি নেতারা ভারত মাতার খেয়ে কিভবে সন্ত্রাসবাদী জঙ্গিদের সমর্থন কথা বলতে পারে। আসলে দেখলেই বোঝা যায় কংগ্রেস সেই দল যারা নিজেদের ক্ষমতার লোভে বার বার পাকিস্থানের দালালি করে এসেছে। কংগ্রেস সেই পার্টি যারা ধর্মের নামে ভারতকে তিন ভাগে ভাগ করে ফেলেছে। স্বাধীনতার পরেও কাশ্মীর এর একটা ভাগকে পাকিস্থাকে দান করে দিয়েছে এবং বাকি কাশ্মীরের ইসলামিকরণ করে ফেলেছে।